দৌছড়ি সীমান্তের স্থানীয়রা ফের আতঙ্কে : পালাচ্ছে স্থানীয়রা !

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার দৌছড়ি ইউনিয়নের সীমান্তের ওপারের ভূখণ্ড থেকে গোলা আর গুলির আওয়াজে এপাড়ের সীমান্তের মানুষ আতঙ্কিত। ফলে অনেক বাড়ি ঘর ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছে।

আজ ২২ অক্টোবর শনিবার সাড়ে ১২টায় দৌছড়ি ইউনিয়নের বাহিরমাঠ নিকটবর্তী ৪৯, ৫০ নং সীমান্ত পিলারের ঠিক ওপারের মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বিজিপি ও সে দেশের বিদ্রোহী গোষ্ঠী সাথে প্রচন্ড গোলাগুলি ও গোলা এসে পরার ঘটনা, বাংলাদেশে একটি গুলি এসে পড়ার কারনে ফের চরম আতংক বিরাজ করছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাইক্ষ্যংছড়ির দৌছড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুহাম্মদ ইমরান।

তিনি জানান, শনিবার সকাল সাড়ে ১২টায় হঠাৎ দৌছড়ির বাহিরমাঠ এর ৭,৮ নং ওয়ার্ডের নিকটবর্তী ৪৯,৫০ সীমান্ত পিলারের ঠিক কাছাকাছি মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিজেপি) এর সাথে সেই দেশের বিদ্রোহী গোষ্ঠীর সাথে প্রচন্ড গোলাগুলি ও গোলা বর্ষণের বিকট শব্দের আওয়াজ এপারের সীমান্তে শুনা গেলে এলাকাবাসীর মধ্যে চরম আতংকে বিরাজ করছে।

তিনি আরো বলেন, সংঘটিত গোলাগুলিতে এপারের ভূখন্ডে একটি ভারী অস্ত্রের গুলি আর গোলা এসে পড়েছে বলে সীমান্তে বসবাসরত লোকজন থেকে শুনা যায়। তবে সীমান্তে বসবাসরত ২শত পরিবারকে নিরাপদে আসার জন্য নির্দেশনা দিয়েছি। তারা নিরাপদ স্থানে এসে পড়েছে। এ ঘটনায় কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

চাকঢালা সীমান্তে বসবাসরত মোহাম্মদ আলী জানান, সাড়ে ১২টার সময় হতে হঠাৎ মায়ানমারের ভূখন্ডে প্রচন্ড গোলাগুলির আওয়াজ শুনতে পায়। তখন গোলাগুলির আওয়াজ শুনে ঘর থেকে বের হয় এবং মুহুর্মুহু গুলির আওয়াজ শুনতে পায়। একটি রাইফেলের গুলিও তার সামনে পড়ে বলে জানান।

সীমান্ত বসবাসরত আব্দু শুক্কুর জানান, সকালে ধান ক্ষেতে কাজ করার সময় হঠাৎ মিয়ানমারে ভূখন্ডে প্রচন্ড গোলাগুলির আওয়াজ শুনতে পায়। তখন গোলাগুলির আওয়াজ শুনে ধান ক্ষেত থেকে সরে আসার পর পর দুইটি গোলা এসে পড়ে এদেশের ভূখন্ডে।

এদিকে একটি বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, মিয়ানমার ভূখন্ডে গোলাগুলিতে একটি ভারী অস্ত্রের গুলি লেমুছড়ি বিজিবি ক্যাম্পের প্রায় তিনশত গজ দূরত্বে এসে পড়েছে সূত্রে জানান।

এই ব্যাপারে নাইক্ষ্যংছড়ি থানার উপ পরিদর্শক মিঠুন সিংহ বলেন, একটি মামলা তদন্ত করার জন্য সদর ইউনিয়নের ভালুকখায়া এলাকায় যায়, সেখানে বিকট শব্দের গোলাগুলির আওয়াজ শুনতে পায়।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।