ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ব্যক্তিগত সম্পত্তি বলা যাবে না

যে কোন বৌদ্ধ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান যে ভান্তে তৈরি করবে করুক উনি নির্বাণ লাভ বা মারা যাওয়ার পরে কোন কিছু কেউ ব্যক্তিগত সম্পত্তি কিংবা পারিবারিক সম্পত্তি বলতে পারবে না । এক্ষেত্রে ভিক্ষু সংঘের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ওই সম্পত্তি পরিচালিত হবে । ভান্তেরা সর্বত্যাগী । সবকিছু ত্যাগ করে শ্রমণ হয়েছেন ।

শনিবার দুপুরে (১৬মে) বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত কমিটির এক সভায় উপঞঞাযোত মহাথের (উচহ্লা ভান্তে) এর তৈরি করা রাজগুরু বৌদ্ধ বিহার, পর্যটনকেন্দ্র স্বর্ণজাদি এবং খিংওয়াইক্যং এর ব্যবস্থাপনা বিষয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে পার্বত্য ভিক্ষু পরিষদের সভাপতি ও রোয়াংছড়ি বৌদ্ধ বিহারের উপাধ্যক্ষ উপঞঞাঁনন্দ মহাথের এ কথা বলেন ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন,ভাঙামুরা পাড়া বৌদ্ধ বিহারাধ্যক্ষ উপঞঞা মহাথের , বান্দরবান বালাঘাটা বিমুক্তিসুখ বৌদ্ধ বিহারের বিহারাধ্যক্ষ উ: সুন্দরানন্দ মহাথের, ওয়াব্রাইং পাড়া বৌদ্ধ বিহারের বিহারাধ্যক্ষ উ: ইন্দাচার মহাথের, পার্বত্য ভিক্ষু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও বালাঘাটা বৌদ্ধ বিহারের বিহারাধ্যক্ষ ভদন্ত তেজপ্রিয় মহাথের, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কেএস মং, বোমাং রাজার প্রতিনিধি মংনুপ্রু, রাজকুমার বোমংপ্রু, হেডম্যান এসোসিয়েন প্রতিনিধি মংথোয়চিং হেডম্যান ।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।