নাইক্ষ্যংছড়িতে খোলা বাজারে চাউল বিক্রি শুরু

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে করোনার প্রভাবে এখন ঘর বন্ধি কর্মহীন মানুষ। এসময় নিম্ন আয়ের কর্মহীন মানুষের জন্য খোলা বাজারে ১০ টাকা কেজি দরে চাউল বিক্রির উদ্বোধন করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) সকালে নাইক্ষ্যংছড়ি সদরের বাজার মসজিদ মার্কেটে এই চাউল বিক্রির উদ্বোধন করেন উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন কচি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা কৃষি অধিদপ্তরের উপ-সহকারি কর্মকর্তা মহিবুল ইসলাম রাজীব,সদরের ডিলার হোছাইন সাওদাগরসহ অন্যান্য ক্রেতারা ।

কৃষি উপ-সহকারি ও টেগ অফিসার মুহিবুল ইসলাম জানান, নিন্ম আয়ের হতদরিদ্র মানুষের জন্য ১০টাকা কেজি দরে চাউল বিক্রি করা হচ্ছে। তবে এই চলতি মাসে করোনার প্রভাবে নিন্ম আয়ের হতদরিদ্র মানুষ এখন ঘর বন্ধি রয়েছে। এসময় সরকার এই হতদরিদ্রদের ১০টাকা কেজি দরে চাল বিক্রয় চালু রেখেছে। এ

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা মিলন কান্তি চাকমা জানান, উপজেলায় ৫ ইউনিয়নে ৯ জন ডিলার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। তার মধ্যে সদর ইউনিয়নের নাইক্ষ্যংছড়ি বাজারের মসজিদ মার্কেটে ডিলার হোছাইন সাওদাগর ১৭টন ১৯০ কেজি, চাকঢালা বাজারের ডিলারের ফয়েজ উল্লাহ ১৩ টন ২৬০ কেজি, দৌছড়ির ইউনিয়নের দৌছড়ি বাজারের ডিলার মো,ইকবাল ৫টন ৭শত কেজি,লেমুছড়ি বাজারের ডিলার ছৈয়দ নূর ১০টন ৫৯০ কেজি, বাইশারী ইউনিয়নের বাইশারী বাজারের ডিলার বেলাল উদ্দীন ২০টন ৬১০ কেজি, ক্যাংগরবিল বাজারের ডিলার আজগর আলী ৮টন ১৯০ কেজি, ঘুমধুম ইউনিয়নের ঘুমধুম বাজারের ডিলার শফি উল ১৭ টন ২৮০ কেজি, বড়বিল বাজারের মো,খুরশেদ আলম ৯ টন ৭৫০ কেজি ও সোনাইছড়ি ইউনিয়নের ষ্টেশন বাজারের ডিলার নুরুল আবছার ১১টন ১৬০ কেজি এবং ইউপি বাজারের জন্য ১১টন ১০৯ কেজি করে চাউল বিক্রি করবেন এ নিয়োগকৃত ডিলারেরা ।

ডিলার সূত্রে জানা যায়,সপ্তাহের মঙ্গলবার, বুধবার ও বৃহস্পতিবার এই তিন দিন উপজেলার ৯টি স্পটে এই চাউল বিক্রি করা হবে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।