নাইক্ষ্যংছড়িতে ছাত্রলীগের উপর হামলার ঘটনায় ৩ জনের জামিন নামন্ঞ্জুর

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি কলেজে ছাত্রদল নামধারী কিছু বহিরাগত সন্ত্রাসীদের ক্যাম্পাসে প্রবেশের বিষয়কে কেন্দ্র করে পরিকল্পিত হামলার ঘটনায় করা মামলায় তিন জনকে জামিন আবেদন নামন্ঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত। বান্দরবান চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ নুরুল হক আজ সোমবার দুপুরে এ আদেশ দিয়েছেন। জামিন নামন্ঞ্জুকৃত আসামীরা হলেন, আনোয়ারুল ইসলাম রাসেল, শাহাবুদ্দীন কাজল ও মুরশেদুল ইসলাম আরফাত।

জানা যায়, গত মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) ছাত্রদল নামধারী কিছু বহিরাগত সন্ত্রাসীদের কলেজ ক্যাম্পাস প্রবেশ বিষয়কে কেন্দ্র করে পরিকল্পিত ভাবে হামলার ঘটনা ঘটে কলেজ ক্যাম্পাসে। এসময় আহত হন ছাত্রলীগ,যুবলীগের অনেক নেতা-কর্মী। আহত নেতা কর্মীদের মধ্যে গুরুত্বর ভাবে আহত হন কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি এম,এন সেলিম, সাধারণ সম্পাদক ইফতেখার আবরার,উপজেলা ছাত্রলীগের সম্ভাব্য সভাপতি মেহেদী হাসান সানি ও ছাত্রনেতা ইমাত সিকদার। ঘটনায় আহত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসার শেষে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

আর এদিকে, ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখে ২৫ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন নাইক্ষ্যংছড়ি থানায়। যার মামলা নং-জিআর ৮৩/২০২২ইং। ২১ মার্চ সোমবার অভিযোগ ভূক্ত ২৫ আসামীর মধ্যে ১৫জন আসামী বান্দরবান জেলা চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করিলে আদালত তিন জনকে জমিন নামন্ঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। সোমবার বিকেলে জামিন নামন্ঞ্জুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উক্ত মামলার বাদী মেহেদী হাসান সানি।

তিনি বলেন, ভিডিও ফুটেজ দেখে ঘটনাকারীদের শনাক্ত করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আর কিছু ঘটনাকারী মূখ চেনা পরিচয় তবে তাৎক্ষুণিক নাম গ্রাম নাম না জানায় অজ্ঞাত রয়েছে। আদালতে দায়েরকৃত ২৫ জন আসামীর মধ্যে ১৫ জন আসামী জামিনের জন্য আবেদন করিলে তার মধ্যে তিন জনকে আদালত নামন্ঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠিয়েছেন। তবে আরও বাকী ১০জন আসামী জামিন আবেদন করেননি। এ ১০জন কিছু আওয়ামী লীগের নেতার ছত্রছায়ায় অবাদে ঘুরাফেরা করতেছে বলে একটি সূত্রে জানা যায়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আসামী গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত রয়েছেন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।