নাইক্ষ্যংছড়িতে মেম্বারের বাসার গেইটে তালা ঝুলোলো দুষ্কৃতীরা

বিনা-প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হওয়ার জের !

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের বিনা-প্রতিদ্বন্ধিতায় নব-নির্বাচিত হওয়ার পরও মেম্বারের প্রধান গেইটে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে দুষ্কৃতীরা। এ ঘটনাটি ঘটেছে গত ১৬ অক্টোবার (বুধবার) বিকেল সাড়ে ৩টায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,আরিফ উল্লাহ ছোট্টু দীর্ঘ ২১ বছর জনগনের ভালোবাসায় তিন বার জনগনের নির্বাচিত মেম্বার এবং বতর্মান উপজেলা বিএনপি,র সভাপতি। তার বাড়ীর প্রধান গেইটটি দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকে সবার জন্য। এলাকার জনগন প্রতিনিয়ত মেম্বারের সাথে দেখা-সাক্ষাত করতে ২০-২৫ জনের অধিক আসা-যাওয়া করতে দেখা যেত। তবে হঠাৎ প্রধান গেইটে গত বুধবার বিকেল ৩টার দিকে এক যুবক তালা ঝুলিয়ে পালিয়ে যেতে দেখে আমাদের সন্দেহ হয় নির্বাচনি ও রাজনীতির প্রতিহিংসায় এসব ঘটনা ঘটিয়েছে।

মেম্বারের বড় ছেলে কফিল উদ্দীন জানান, আমার জন্মের পর থেকে দেখে আসছি প্রতি দিন গড়ে ২০ থেকে ২৫ জন মানুষ আসা-যাওয়া করে আমার বাড়ীতে, বিভিন্ন সুবিধা-অসুবিধার খবরাখবর নিয়ে।

গত বুধবার বিকাল প্রায় ৩ টার দিকে কে বা কারা এসে গেট বন্ধ করে একটি তালা ঝুলিয়ে পালিয়ে যায় বলে কয়েকজন পথচারি আমার পরিবারকে জানায়। ঘটে যাওয়া ঘটনাটি কি উদ্দেশ্যে করেছে বোধগম্য নয়। তবে মনে হচ্ছে আমার বাবার প্রতি ভালবাসা দেখে কারো কারো সহ্য হচ্ছেনা।

আরেফ উল্লাহ ছুট্ট জানান,যে সময় তালা ঝুলানোর ঘটনাটি ঘটে তখন আমি বাড়ীতে। তালা ঝুলিয়ে পালিয়ে যেতে দেখে পথচারিরা চিৎকার চেঁচামেচি শুনে বাড়ী থেকে বের হয়ে প্রধান গেইটে এসে জানতে পারি গেইটের বাহির থেকে তালা ঝুলিয়ে কে বা কারা পালিয়ে যেতে দেখা যায় বলে কয়েকজন পথচারি জানান।

এই বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি থানা ওসি আনোয়ার হোসেন জানান,ঘটনার খবর পাওয়ার সাথে সাথে এস,আই রাজিব ঘটনাস্থলে পরির্দশন করে গেইটে তালা ঝুলানো দেখতে পাই বলে জানান। তদন্ত করে এই বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য,গত ১৪ অক্টোবর নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদের অনুষ্টিত নির্বাচনে বিনা-প্রতিদ্বন্ধিতায় সদর ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার নির্বাচিত হয়েছেন আরেফ উল্লাহ ছুট্ট।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।