নাশকতার পরিকল্পনা : বান্দরবানের আল ফারুক ইনিস্টিটিউট থেকে ইসলামী ছাত্রী সংস্থার নারীসহ আটক ৬

আল ফারুক ইনিস্টিটিউট,বান্দরবান (ফাইল ছবি)
নাশকতা ও হামলার পরিকল্পনায় বান্দরবানে ইসলামী ছাত্রী সংস্থার ৫ নারীকর্মী ও একটি বেসরকারি বিদ্যালয়ের দপ্তরিকে আটক করেছে পুলিশ। আজ রবিবার বিকেলে বান্দরবান আল ফারুক ইনস্টিটিউট স্কুলের একটি কক্ষে গোপন সভা করার সময় তাদেরকে আটক করে পুলিশ। তবে আগে থেকে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দুইজন সভা থেকে পালিয়ে যায় ।
আটকরা হলেন-চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডের সৈয়দপুর ইউনিয়নের বিবি খাতিজা (২৪), চাঁদগাও থানার ওয়াদ্দা বেগম (১৮), বান্দরবান জেলা সদরের ফায়ার সার্ভিস এলাকার তাহমিনা সুলতানা (১৮), বালাঘাটা ১ নং ওর্য়াডের নাইমা ফারজানা (১৮) এবং মেম্বার পাড়ার শামিমা আক্তার (১৯) । এছাড়াও বান্দরবান কেন্দ্রীয় মসজিদ সংলগ্ন ধোপা পুকুর পার এলাকা থেকে ওই বিদ্যালয়ের দপ্তরি আবদুল মালেককে আটক করা হয়েছে।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নাশকতা হামলার পরিকল্পনার জন্য তারা সবাই বিকেলে আল ফারুক ইনিস্টিটিউট স্কুলের একটি কক্ষ জড়ো হয়ে সভা করছিল। সভায় উপস্থিত ছিলেন নারী-পুরুষসহ ৮ জন। আর এই নাশকতার পরিকল্পনার নেতৃত্ব প্রদান করছিলেন চট্রগ্রামের সীতাকুন্ড থেকে আসা বিবি খাদতজা । তবে সভার বিষয়টি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ জানতে পরে ঘটনাস্থল থেকে নারীসহ ৬ জনকে আটক করে। তবে আগে থেকে পুলিশের উপস্থিত টের পেয়ে ২ জন পালিয়ে যায় ।এই সময় তাদের কাছে থেকে নাশকতা হামলার গোপনীয় কাগজ এবং ইসলামী ছাত্রী সংস্থার বিভিন্ন সামগ্রি উদ্ধার করে পুলিশ।
আরো জানা যায়, বান্দরবান আল ফারুক ইনিস্টিটিউট স্কুল থেকে এর আগেও নাশকতা পরিকল্পনার সভা করার অভিযোগে অনেক জামায়াত এবং শিবির কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ ।
বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম সরোয়ার জানান, নাশকতার পরিকল্পনায় তারা সভা করছিল । আটক নারীরা সবাই শিবিরের ইউনিট ইসলামী ছাত্রী সংস্থার। তিনি আরো জানান, তারা কোথায় নাশকতা চালানোর পরিকল্পনা করছিল সেটি জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বলা যাবে ।
প্রসঙ্গত, জামাত-শিবির নেতাদের পরিচালিত আল ফারুক ইনিস্টিটিউটে মূলত জামায়েত শিবিরের নেতাকর্মীরা বিভিন্ন সময় সরকার বিরোধী কাজের সাংগঠনিক বৈঠক করে থাকে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।