নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশ লইয়ার্স ক্রিকেট দলের জয়

লইয়ার্স বিশ্বকাপ ক্রিকেট

লইয়ার্স বিশ্বকাপ ক্রিকেটে শুভ সূচনা করেছে বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের হ্যামিল্টনে অনুষ্ঠিত নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডকে ৭ উইকেটে উড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ লইয়ার্স দল।

আন্তর্জাতিক লইয়ার্স ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন ব্যবস্থাপনায় নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া ল’ইয়ার্স ক্রিকেট সংস্থা যৌথভাবে আয়োজন করছে বিশ্বকাপটি। ভিন্নধর্মী বিশ্বকাপের এটি সপ্তম আসর। টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে আটটি দল। ৯ জানুয়ারি বিশ্বকাপের ফাইনাল।

এবার তৃতীয়বারের মতো অংশগ্রহণ করছে বাংলাদেশ। আগের দুইবার একটি ম্যাচেও জয়ের মুখ না দেখা বাংলাদেশ এবার প্রথম জয়ের মুখ দেখেছে।

হ্যামিল্টনের জ্যানসেন পার্কে হওয়া ম্যাচে টসে জিতে ফিল্ডিং নেয়া বাংলাদেশ এ দল । পরে বাংলাদেশ দলের বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে নির্ধারিত ৩৫ ওভারে নিউজিল্যান্ড এ দল ৮ উইকেটে ১৫৯ রান সংগ্রহ করে। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট শিকার করেন বাংলাদেশ দলের পেসার সায়েদুল তানভীর হক প্রিয়ম এবং ২ উইকেট শিকার করেন আরেক পেসার মোহাম্মদ ফয়সাল দস্তগীর।

জবাবে দলকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন দুই ওপেনার সাঈদ ফজলে এলাহী অভি এবং সায়েদুল তানভীর হক প্রিয়ম। এরপর দ্রুত ৩ উইকেট হারালেও দলকে আর বিপদে পড়তে দেননি দলের হয়ে দারুণ ফর্মে থাকা একরামুল হক এবং রিয়াদুল হক খান আকাশ। তাদের রানের উপর ভর করে মাত্র … ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ এ দল। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪০ রান সংগ্রহ করেন একরামুল হক।

এর আগে লইয়ার্স ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০০৭ ও ২০১৩ সালে ভারতে, ২০০৯ সালে ইংল্যান্ডে, ২০১১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজে এবং ২০১৫–১৬ সালে অস্ট্রেলিয়ায়, ২০১৭ সালে শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত হয়।

প্রসঙ্গত, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড লইয়ার্স ক্রিকেট এসোসিয়েশনের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত ৭ম লইয়ার্স ক্রিকেট ওয়ার্ল্ড কাপ চ্যাম্পিয়নশিপের পাশাপাশি এবারই প্রথম প্লেট চ্যাম্পিয়নশিপ টুর্নামেন্ট চালু করা হয়েছে । যেখানে অংশগ্রহনকারী দেশগুলোর মূল টিমের পরিবর্তে দ্বিতীয় একটি দলকে খেলার সুযোগ দেয়া হয়েছে। উক্ত প্লেট টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্বকারী বাংলাদেশ বি টিমও কমনওয়েলথ একাদশকে হারিয়ে ইতোমধ্যেই জয়ের দেখা পেয়েছে।

বাংলাদেশ এ দলে যারা আছেন : খালেদ হামিদ চৌধুরী, মুনতাসীর উদ্দিন আহমেদ (অধিনায়ক), মুদাচ্ছির আহমেদ, আহমেদ নাকিব করিম (সহ-অধিনায়ক) আলী বাশার, মনোয়ার হোসাইন, মোহাম্মদ ফয়সাল দস্তগীর, একরামুল হক (উইকেটকিপার), ফাহাদ মাহমুদ, সাঈদ ফজলে এলাহী অভি, রিয়াদুল হক খান আকাশ, সায়েদুল তানভীর হক প্রিয়ম, বোচ হাই, ইশরাক আহমেদ, জয়দেব বসুনীয়া। টিম ম্যানেজার: অনিক আর. হক।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।