নিত্যপণ্যের দাম কমাতে রোয়াংছড়িতে হার্ডলাইনে প্রশাসন

করোনা ভাইরাসকে পুঁজি করে বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলার বাজারে নিত্যপণ্যের হঠাৎ করে দাম বৃদ্ধি করায় বাজারে মূল্যে স্থিতি রাখতে প্রতিটি পাইকারী ও খুচরা দোকানে মনিটরিং করে মূলত হার্ডলাইনে প্রশাসন। যার ফলে শুক্রবার সকাল থেকে রোয়াংছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে একটি টিম উপজেলার বাজার মনিটরিং করেন।

সূত্রে জানা গেছে, দেশের করোনা ভাইরাসের কারনকে পুঁজি করে ২০ মার্চ পাইকারী ও খুচরা ব্যবসায়ী মিলন বড়ুয়া,মো: লোকমান,সুখেন্দু বিকাশ কর্মকার,মো: আব্দুল জালিল মিলে সিন্ডিকেট করে নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধি করে। ব্যবসায়ীরা অতি লাভের আশায় রোয়াংছড়ি বাজারে কমিটির সিদ্ধান্ত দেখিয়ে সাধারণ সম্পাদক বিজিত বড়ুয়ার নামে পণ্য তালিকায় স্বাক্ষর করে নির্ধারিত মূল্য হিসেবে প্রতিটি দোকানে ঝুঁলিয়ে দেন। এরপর চাল,ডাল,পেঁয়াজ,আলু,চিনি,দুধসহ নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী অতিরিক্ত দাম বৃদ্ধি করে কেনা-বেচা করেন। এতে উপজেলা প্রশাসনের নজরে আসলে আজ শুক্রবার তাৎক্ষণিক ভাবে মাঠে নামে প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

আরো জানা গেছে, এসময় দ্রব্যমূল্যের দাম বেশি বলে প্রাথমিক ভাবে প্রমাণিত হওয়ায় সকল ব্যবসায়ীদের দ্রব্যমূল্য ঠিক রাখতে সর্তক করে দেয় এবং আগামীতে এসব ব্যাপারে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে জরিমানা ও দন্ড দেওয়া হবে বলে জানান।

এদিকে এরপর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্স পরিদর্শন করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: মেহেদী হাসান।

আরও পড়ুন
Loading...