নিত্যপণ্যের দাম স্থিতিশীল রাখতে রাঙামাটিতে মাঠে নেমেছে প্রশাসন

রাঙামাটিতে বাজার নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত দামে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য ও মাস্ক বিক্রি করায় ৪ দোকানদারকে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ১৬ হাজার টাকা জরিমানা করেছে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আজ শুক্রবার (২০মার্চ) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত একযোগে শহরের বনরুপা, রিজার্ভ বাজার ও তবলছড়িতে এ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে রাঙামাটির জেলা প্রশাসন।

এসময় বনরুপায় নেজারত ডেপুটি কালেক্টর উত্তম কুমার দাশের নেতৃত্বে চালানো মোবাইলকোর্টে মূল্য তালিকায় উল্লেখিত দাম বেশি হওয়ায় খাজা গরীবে নেওয়াজ পোল্ট্রি ফার্ম কে ২ হাজার, বিসমিল্লাহ সেইল সেন্টারকে ৪হাজার ও নুরুল ইসলাম পোল্ট্রে ফার্মকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এদিকে মাস্কের অতিরিক্ত দাম রাখায় গতকাল থেকেই রুপমেলা এক্সসেপশোনাল কালেকশনের বিরুদ্ধে বেশকয়েকজন ক্রেতা অভিযোগ জানানোয় অভিযান চালানোর সময় এক ক্রেতার কাছে অতিরিক্ত দাম চেয়ে বসে উক্ত প্রতিষ্ঠানের মালিক। তাই তাকে ৪হাজার টাকা জরিমানা করার পাশাপাশি আগামীতে অতিরিক্ত দামে মাস্কসহ অন্যান্য পন্যের দাম সহনীয় রাখার নির্দেশনা দেন ম্যাজিস্ট্রেট।

এছাড়াও পুরো বাজার ঘুঁড়ে তিনি প্রায় সব দোকানেই যান এবং পন্যর দাম জানেন এবং পূর্বের মূল্যেই পন্য বিক্রয়ের নির্দেশ দেন। এরপর ক্রেতার কাছে শুটকির অতিরিক্ত দাম চাওয়ার মো. বেলালকে ২হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

রিজার্ভ বাজারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পল্লব হোম দাশের নেতৃত্বে মোবাইলকোর্ট পরিচালিত হয়েছে। তিনি কাউকে জরিমানা না করলেও সকল দোকানদারদের অতিরিক্ত দাম না রাখতে সতর্ক করেন।

এদিকে তবলছড়িতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইসলাম উদ্দীন মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। তিনি অতিরিক্ত দামে পন্য বিক্রয় করায় ২টি দোকানকে ২হাজার করে জরিমানা করেন।

অভিযানের বিষয়ে নেজারত ডেপুটি কালেক্টর উত্তম কুমার দাশ জানান, যেহেতু করোনা ভাইরাস নিয়ে জনগন আতংকিত অবস্থায় আছে তাই ব্যবসায়ীদের একটি মহল অতিরিক্ত দামে পন্য বিক্রয় করছে। তাই দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেছি।

আমাদের এই কার্যক্রম চলমান থাকবে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, ভবিষ্যতে যাতে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি করে বিক্রি না করে এজন্য সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন
Loading...