পাওয়ার প্ল্যান্ট তৈরী করে কাপ্তাইয়ের কেপিএমকে লাভজনক করা হবে: প্রধানমন্ত্রী

কর্ণফুলী পেপার মিল
বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাষ্ট্রিজ কর্পোরেশন ( বিসিআইসি) এর কাগজ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান রাঙামাটি জেলার কাপ্তাই উপজেলার চন্দ্রঘোনা কর্ণফুলী পেপার মিলস লিমিটেড( কেপিএম) এ একটি নতুন পাওয়ার প্ল্যান্ট( কারখানাটিতে বিদ্যুৎ ব্যবহারের নিমিত্ত) নির্মাণ করা হবে।
বুধবার জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশনে কার্যপ্রণালী ৪২ ধারায় রাঙামাটি থেকে নির্বাচিত সাংসদ উষাতন তালুকদারের কেপিএম সংক্রান্ত মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী এবং শিল্প মন্ত্রীর নিকট এক প্রশ্নের জবাবে প্রধান মন্ত্রী সংসদে একথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী সংসদে জানান, কারখানাটিকে লাভজনক ভাবে যৌথ উদ্যোগ( পিপিপি এর আওতায়) পরিচালনার নিমিত্তে এবং নতুন কারখানা স্হাপন ও পরিচালনার লক্ষ্যে গত ২০ অক্টোবর ২০১৬ সৌদি প্রতিষ্ঠান আল রাজি কোম্পানি এর সাথে বিসিআইসির একটি mou( memorandurn of understanding) চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। বিগত ৮ মে ২০১৭ রিয়াদস্থ বাংলাদেশ দুতাবাসে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এর উপস্থিতিতে আল রাজির প্রতিনিধি এবং সৌদি salwy কোম্পানির প্রতিনিধির সমন্বয়ে একটি ত্রিপক্ষীয় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
তিনি আরো বলেন, উক্ত সভায় সিদ্ধান্ত হয় যে বিসিআইসি ও আলরাজি এর মধ্যে স্বাক্ষরিত mou টি সৌদি salwy কোম্পানি বাস্তবায়িত করবে। পরবর্তীতে গত ২৪ মে২০১৭ সৌদি salwy কোম্পানি ও বিসিআইসি এর এক বৈঠকে কেপিএম এর কারখানাটি বর্ধিত করে কারখানাটির সন্নিকটে পাওয়ার প্ল্যান্ট ও একটি পৃথক স্বাধীন নতুন পাল্প এবং পেপার মিল তৈরির নিমিত্তে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।
এছাড়াও কেপিএম এর শ্রমিক, কর্মচারি ও কর্মকর্তা যারা ইতিমধ্যে অবসরে গেছেন তাদের বকেয়া ৩১ কোটি ১৮ লাখ টাকা পরিশোধের ব্যাপারে জাতীয় সংসদের দৃষ্টি আর্কষন করা হয়। এর আগে সংরক্ষিত মহিলা সাংসদ ফিরোজা বেগম চিনু জাতীয় সংসদে কেপিএম এর সমস্যা নিয়ে ব্ক্তব্য রাখেন।
এদিকে এই বিষয়ে কেপিএম কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান এই সিদ্ধান্তে তারা খুবই আনন্দিত। কেপিএম শ্রমিক কর্মচারী পরিষদ( সিবিএ) এর সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক সকল শ্রমিক কর্মচারীর পক্ষ হতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি কেপিএমকে একটি লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিনত করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নিকট আকুল আবেদন জানান।
কাপ্তাই উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান দিলদার হোসেন বলেন, জরুরী ভিত্তিতে অর্থ বরাদ্দ দিয়ে এই শিল্প প্রতিষ্ঠানটিকে আবারোও সচল করার জন্য সরকারের কাছে আবেদন করছি। আবারোও বিসিআইসির এই প্রতিষ্ঠানটির প্রানচাঞ্চল্য ফিরে আসুক সেই প্রত্যাশা করছে এখানকার শ্রমিক জনগন।।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।