পার্বত্য চট্টগ্রামের হেডম্যান কার্বারীদের আরো দক্ষ হতে হবে : বীর বাহাদুর

রাঙামা‌টিতে সিএইচ‌টি হেডম্যান সন্মেলন

পার্বত্য চট্টগ্রামের হেডম্যান কার্বারীদের আরো দক্ষ হতে হবে। জ্ঞান অর্জন করতে হবে। সনাতনী ধারণা থে‌কে বের হয়ে আসতে হবে এবং বিশ্বের চিন্তা চেতনার সা‌থে তাল মি‌লিয়ে চলতে হবে।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে সিএইচটি হেডম্যান সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি একথা বলেন।

তি‌নি বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা পার্বত্য চট্টগ্রাম মানুষের কষ্ট বুঝেন বলে তিনি শা‌ন্তি চুক্তি করেছেন। তিনিই বাস্তবায়ন করবেন। পার্বত্য অঞ্চ‌লের মানু‌ষের জীবনমান উন্নয়নে তি‌নি যথেষ্ট আন্তরিক।

তি‌নি আরো বলেন, হেডম্যান কার্বারীদের মধ্যে একে অপরের সমন্বয় নেই। বেতন ভাতা বৃদ্ধির আশায় সরকারের উপর চেয়ে থাকলে হবে না। নিজের কাজ নিজেকে করতে হবে। নিজের এলাকা সম্পর্কে জ্ঞান রাখতে হবে। নিজের এলাকার জনসংখ্যা কত, শিক্ষিত কতজন এসব বিস্তারিত তথ্য রাখতে হবে হেডম্যান কার্বারীদের।

সিএইচটি হেডম্যান নেটওয়ার্কের সভাপতি কংজরী চৌধুরীর সভাপতিত্বে হেডম্যান সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন চাকমা সার্কেল চীফ ব্যারিষ্টার রাজা দেবাশীষ রায়, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার ড. প্রকাশ কান্তি চৌধুরী, রাঙামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুই প্রু চৌধুরী, বান্দরবান জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সিংইয়ং ম্রো, খাগড়াছড়ি মং সার্কেল চীফ সাচিং প্রু চৌধুরী, রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, হেডম্যান চিংকিউ রোয়াজা, শান্তি বিজয় চাকমা, জয়া ত্রিপুরা, এএলআরডি উপ নির্বাহী পরিচালক রওশন জাহান মনি।

সম্মেলনে তিন পার্বত্য জেলার ৩৫০ জন হেডম্যান কার্বারী অংশ গ্রহণ করেন।

আরও পড়ুন
1 মন্তব্য
  1. suman বলেছেন

    দক্ষতা’র সূচক, মাপকাঠি এইসব বিচার করার যোগ্যতাসম্পন্ন ব্যক্তি আদৌ কি অমাদের সমাজে আছে। আছে, কিন্তু তাদেরকে কি যথাযোগ্য প্রাপ্য মর্যাদা আমরা দিই। জনগণকে মটিভেশন দেওয়ার আগে একটু চিন্তা করা বাঞ্চনীয় আমি নিজেই মটিভেটেড কীনা?

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।