পার্বত্য জেলার প্রতি কেন্দ্রে সেনাবাহিনী মোতায়েন থাকবে : সিইসি নুরুল হুদা

রাঙ্গামাটিতে সিইসি নুরুল হুদা
প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু করার লক্ষ্যে বিশেষ অঞ্চল হিসেবে গুরুত্ব দিয়ে পার্বত্য তিন জেলার প্রতিটি কেন্দ্রে সেনাবাহিনী মোতায়েন থাকবে। আসন্ন সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আইনশৃঙ্খলা নিয়ে আজ মঙ্গলবার রাঙ্গামাটিতে অনুষ্ঠিত তিন পার্বত্য জেলার সাথে মত বিনিময় সভায় সিইসি নুরুল হুদা এসব কথা বলেন।
সিইসি নুরুল হুদা বলেন, সারাদেশের ন্যায় পার্বত্য তিন জেলায় নির্বাচনের সুষ্ঠু ও শান্তিপুর্ণ পরিবেশ বজায় রয়েছে। এটা যাতে অব্যাহত থাকে। এজন্য তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করে বলেন, যে কোন মূল্যে পার্বত্যাঞ্চলে সুষ্ঠু ভোট গ্রহণে আমরা বদ্ধ পরিকর। তাই বিশেষ অঞ্চল হিসেবে এই তিন জেলার প্রতিটি কেন্দ্রে অন্যান্য বাহিনী ছাড়াও সেনাবাহিনী মোতায়েন থাকবে। তিনি নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান পদের উপ নির্বাচনের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, নানিয়ারচর উপ-নির্বাচন যেভাবে হয়েছে, তাতে আমি সন্তুষ্ট। ঔ নির্বাচনে যেভাবে প্রশাসন তৎপর ছিল, তা প্রশংসনীয়। তিনি সেসময় সেনাবাহিনীর ভুমিকার ভুয়সী প্রশংসা করেন।
তিনি আরো বলেন, ভোট প্রদানে যাতে কেউ বাধাগ্রস্থ না হয় বা প্রভাবিত না হয় সে ব্যাপারে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন কারোরই কাম্য নয়। তিনি নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সকল সকল কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্য করে বলেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন যাতে কোনভাবেই প্রশ্নবিদ্ধ না হয়, সে লক্ষ্যে আন্তরিকতা ও দায়িত্ব-কর্তব্যের সাথে কাজ করে যেতে হবে। কোনরকম পক্ষপাতমুলক আচরন বরদাশত করা হবে না।
মঙ্গলবার সকাল ১১টায় রাঙ্গামাটির ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সাংস্কৃতিক ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে (উসাই) বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের আয়োজনে ও রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় সিইসি কে এম নুরুল হুদার সভাপতিত্বে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
মতবিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নির্বাচন কমিশনার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অবঃ) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী, নির্বাচন কমিশনার সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান, ডিআইজি গোলাম ফারুক। এছাড়া রাঙ্গামাটি রিজিয়ন কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মো. রিয়াদ মেহেমুদ, রাঙ্গামাটি ডিজিএফআই কমান্ডার কর্ণেল মো. শামসুল আলম, রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশিদ, বান্দরবান জেলা প্রশাসক মো. দাউদুল ইসলাম ও খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলামসহ প্রশাসনের বিভিন্ন স্থরের কর্মকর্তাগণ এ সভায় উপস্থিত ছিলেন।
সভার এক পর্যায়ের প্রশাসনের সকলস্তরের কর্মকর্তাদের নিয়ে এক রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন সিইসি। সেসময় তিনি একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন উপহার দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের বিভিন্ন দিক-নির্দেশনা প্রদান করেন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।