পার্বত্য জেলার ভিতরে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের অনুপ্রবেশ হচ্ছেনা : পাহাড়বার্তাকে বিজিবির মহাপরিচালক

শ্রেষ্ঠ পুরুষ ও শ্রেষ্ঠ নারী সৈনিকের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করছেন বিজিবির মহাপরিচালক
পার্বত্য জেলায় বিভিন্ন বিচ্ছিন্নতাবাদী গ্রুপের অবস্থান এবং সীমান্ত সুরক্ষার বিষয়ে পাহাড়বার্তার এক প্রশ্নের জবাবে বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেন বলেন, এখন আমাদের ভিতরে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের অনুপ্রবেশ হচ্ছেনা, আমরা সজাগ আছি, ভবিষ্যতে কখনো এই রকম দেখা যায় তাহলে আমরা সুরক্ষা করার জন্য নতুন নতুন বিওপি, আমরা বিভিন্ন জায়গায় স্থাপনের পরিকল্পনা করছি।
বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার বায়তুল ইজ্জত বর্ডার গার্ড ট্রেনিং সেন্টার এন্ড স্কুলে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ এর ৮৯তম ব্যাচ রিক্রুটদের সমাপনী কুজকাওয়াজ অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।
উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও অভিবাদন গ্রহন করেন বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেন, (এনডিসি-পিএসসি। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, বর্ডার গার্ড ট্রেনিং সেন্টার এন্ড স্কুল এর কমান্ড্যান্ট ব্রি.জেনারেল এ কে এম সাইফুল ইসলাম, ৬৯ পদাতিক ব্রিগেড এর কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মুহাম্মদ যুবায়ের সালেহিন, বিগ্রেডিয়ার জেনারেল শাহরিয়ার আলম চৌধুরী, বান্দরবানের বোমাং রাজা উ চ প্রæ চৌধুরীসহ অনেকে।
তিনি পাহাড়বার্তাকে আরো বলেন, অরক্ষিত সীমান্ত ছিলো ৪৮০ কিলোমিটার, আমরা ৩৭০ কিলোমিটারে আমরা বিওপি বসাতে পেরেছি, আরো ১১০ কিলোমিটার অরক্ষিত আছে,আমরা অতিসত্বার যাতে সীমান্ত পুরোপুরি আমাদের নজরে চলে আসে আমরা এই ব্যবস্থা নিচ্ছি।
এসময় প্রধান অতিথি ৮৯তম রিক্রুট ব্যাচের ৫০১জন নবীন পুরুষ সৈনিক ও ৯৩ জন নবীন নারী সৈনিকের মধ্যে সর্ব বিষয়ে শ্রেষ্ঠ পুরুষ ও শ্রেষ্ঠ নারী সৈনিকের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করেন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।