পার্বত্য জেলায় ২৪ করোনা রোগী নিয়ে শীর্ষে রাঙামাটি

তিন পার্বত্য জেলার মধ্যে সবার পরে করোনা সংক্রামন রাঙামাটি জেলায় ছড়িয়ে পড়লেও ২৪জন করোনা রোগী নিয়ে শীর্ষে অবস্থান করছে রাঙামাটি জেলা। প্রথম করোনা সংক্রামন বান্দরবান জেলায় হলেও জেলাটিতে ১০ করোনা রোগী নিয়ে ২য় অবস্থান এবং অপর জেলা খাগড়াছড়িতে ৫জন আক্রান্ত রোগী নিয়ে ৩য় অবস্থানে রয়েছে।

তিন পার্বত্য জেলার স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, রাঙামাটিতে আজ বৃহস্পতিবার ১০ জনের শরীরে করোনা সনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে সদর হাসপাতালের ১ জন নার্স, ১ জন আয়া, লংগদু ২, জুরাছড়ি ৬ জন। এই নিয়ে মোট জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২৪ জন। যা তিন পার্বত্য জেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি। রাঙামাটি সিভিল সার্জন কার্যালয়ের করোনা ইউনিটের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ডা: মোস্তফা কামাল বিষয়‌টি নি‌শ্চিত করেছেন।

বান্দরবান জেলার সিভিল সার্জন অংসুই প্রু বলেন, জেলায় মোট করোনা রোগীর সংখ্যা ১০ জন। তাদের নাইক্ষ্যংছড়িতে ৫ জন,লামায় ৩ জন ও থানচিতে পুলিশ সদস্যসহ ২ জন আক্রান্ত হলেও তাদের অধিকাংশ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে।

অন্যদিকে খাগড়াছড়ি সদর, পানছড়ি, দীঘিনালা ও মহালছড়িতে এক পুলিশ সদস্যসহ ৫ জন করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে ৪ জন পুরুষ ও ১ জন নারী। জেলার প্রথম আক্রান্ত ব্যক্তি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে।

খাগড়াছড়ি আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. পূর্ণজীবন চাকমা বলেন, গত ৭ মে করোনার উপসর্গ নিয়ে জেলা সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি হয় পানছড়ি উপজেলার লতিবান এলাকার এক যুবক। চট্টগ্রাম ফেরত এ যুবকের উপসর্গ থাকায় ওইদিনে তার নমুনা সংগ্রহ করে টেস্টের জন্য পাঠানো হয়। আজ ১৪ মে সে সুস্থ হয়ে উঠায় তাকে আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়।

প্রসঙ্গত,দেশের জেলাগুলোর মধ্যে সর্বশেষ করোনা রোগীর সন্ধান মেলে রাঙামাটিতে এবং অল্পদিনেই তিন পার্বত্য জেলার মধ্যে করোনা আক্রান্ত রোগী নিয়ে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে রাঙামাটি।

আরও পড়ুন
Loading...