পার্বত্য শান্তিচুক্তি দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি

বান্দরবান ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী মিলানায়তনে পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন কমিটি’র আলোচনা সভা
বান্দরবান ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী মিলানায়তনে পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন কমিটি’র আলোচনা সভা
পার্বত্য শান্তি চুক্তির পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়নের দাবিতে বান্দরবানে জনসমাবেশ করে পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন কমিটি । শুক্রবার দুপুরে বান্দরবান ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী মিলানায়তনে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয় ।

বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান থোয়াই চ প্রু মাষ্টারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের পার্বত্য অঞ্চলের সমন্বয়কারী ডনাই প্রু নেলী । বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রুমা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অংথোয়াই চিং মারমা ।

১৯ বছর বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী মিলানায়তন থেকে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয় । পরে শোভাযাত্রাটি জেলা শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই জায়গায় শেষ হয়।

জনসমাবেশে বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ ও তিন পার্বত্য জেলা পরিষদের কার্যাবলী হস্তান্তর, পার্বত্য চট্টগ্রামের জুম্ম অধ্যুষিত অঞ্চলের বৈশিষ্ট্য সংরক্ষণ, অপারেশন উত্তরণসহ অস্থায়ী ক্যাম্প প্রত্যাহার, ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তিকরণ, ভারত প্রত্যাগত জুম্ম শরণার্থী ও অভ্যন্তরীণ উদ্বাস্তুদের স্ব স্ব জায়গা-জমি প্রত্যর্পণসহ পুনর্বাসনসহ শান্তি চুক্তির সকল ধারা দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জানান ।

প্রসঙ্গত,পাহাড়ে শান্তি ফিরে আনার জন্য ১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর তৎকালীন প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে বাংলাদেশে রাষ্ট্রের পক্ষে আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ এবং পাহাড়ি জনগোষ্ঠীর পক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সভাপতি বাবু জ্যোতরিন্দ্র বোধপ্রিয় লারমা উরফে সন্তু লারমা এ চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। সরকার পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) এর সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেন ।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।