পাহাড়ে সন্ত্রাসী দমনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জিরো ট্রলারেন্স

খাগড়াছড়ি সার্কিট হাউসে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক বিশেষ মতবিনিময় সভা
রাজনীতির নামে পার্বত্য চট্টগ্রামের সাধারণ মানুষদের জিম্মি করে যারা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ঘোলাটে করার চেষ্টা করছে তাদের ছাড় দেয়া হবে না। সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী জিরো ট্রলারেন্সে রয়েছে। খাগড়াছড়িতে গত ১৮ আগস্ট হত্যাকান্ড ও পার্বত্য চট্টগ্রামের সার্বিক পরিস্থিতির উপর আজ মঙ্গলবার দুপুরে খাগড়াছড়ি সার্কিট হাউসে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক বিশেষ মতবিনিময় সভায় বক্তারা এসব কথা জানান।
চট্টগ্রাম বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে খাগড়াছড়ির সাংসদ কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, চট্টগ্রাম ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল জাহাঙ্গীর কবির তালুকদার, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি গোলাম ফারুক অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন।
মতবিনিময় সভায় খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক মো: শহীদুল ইসলাম,খাগড়াছড়ি রিজিয়নের অধিনায়ক ব্রি: জেনারেল আব্দুল মোতালেব সাজ্জাদ মাহমুদ, বিজিবি সেক্টরের অধিনায়ক কর্ণেল গাজী সাজ্জাদ,পুলিশ সুপার আলী আহমদ খানসহ সামরিক বেসামরিক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
মতবিনিময় সভা থেকে পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা, চাঁদাবাজদের নির্মূলসহ আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলোর জন্য নীতি প্রণয়ন ও সংলাপ আয়োজনের সুপারিশ উঠে আসে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাংসদ কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের সমস্যাকে রাজনৈতিক সমস্যা চিহ্নিত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন। চুক্তির ৭২ ধারার মধ্যে ৪৮টি ধারা বাস্তবায়ন করা হয়েছে। যারা চুক্তি ও রাষ্ট্রের বিরোধীতা করে সাধারণ জনগণকে বিভ্রান্ত করছে তাদের প্রতিরোধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি জনগণকে সোচ্চার হতে হবে। পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে সন্ত্রাসীদের আশ্রয় প্রশ্রয় না দিতে সকলের প্রতি অনুরোধ জানান তিনি।
মতবিনিময় সভার আগে বিভাগীয় কমিশনার ও ডিআইজি খাগড়াছড়ির ডিসি ও এসপিকে সাথে নিয়ে খাগড়াছড়ি সার্কিট হাউজে গার্ড অব অনার গ্রহণ করেন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।