পূজা মন্ডপে পবিত্র কুরআন অবমাননাকারীদের শাস্তির দাবি জানালেন বান্দরবানের ইমাম সমাজ

কুমিল্লা নানুয়ার দিঘীর পাড় পূজা মন্ডপে পবিত্র কুরআন অবমাননা কারীদের তদন্ত সাপেক্ষে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বান্দরবানে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ ১৮ অক্টোবর (সোমবার) সর্বস্তরের ইমাম সমাজের ব্যানারে প্রেসক্লাবের হলরুমে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন বান্দরবান কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতীব মাওলানা আলাউদ্দিন ইমামী ও বাজার শাহী জামে মসজিদের খতীব মাওলানা এহসানুল হক আল মূঈন।

এসময় বক্তব্য রাখতে গিয়ে কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতীব মাওলানা আলাউদ্দিন ইমামী বলেন,বেশ কিছুদিন ধরে ফেসবুকসহ বিভিন্ন মিডিয়াকে ব্যবহার করে শান্তি, উন্নতি, শৃংখলা এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির শত্রুরা দেশ ও ধর্মের ক্ষতি করার জন্য,ধর্মানুভূতিতে আঘাত সৃষ্টিকারী উস্কানীমুলক বক্তব্য দিয়ে আবহমান কাল থেকে বিদ্যামান সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করে তাদের হীন উদ্দ্যেশ্য হাসিল করতে চায়।

এসময় তিনি আরো বলেন, যার সর্বশেষ সংযোজন হচ্ছে কুমিল্লার নানুয়ার দিঘীরপাড়ের পূজা মন্ডপে মুসলমানদের প্রাণ প্রিয় ধর্মীয় গ্রন্থ কোরআন শরীফের সাথে চরম বেয়াদবী আচরণ ও অপমান। এসময় তিনি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

বান্দরবান বাজার শাহী জামে মসজিদের খতীব মাওলানা এহসানুল হক আল মূঈন বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, বাংলাদেশে কোরআন এর এত বড় অপমান মেনে নেয়া যায় না। সংবিধান বিরোধী,রাষ্ট্র বিরোধী এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারী এই অপরাধীদের খুজে বের করে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দিতে হবে।

এসময় বক্তারা সংবাদ সম্মেলনে সরকারের কাছে চারটি দাবি জানান। দাবিগুলো হল :
(১) কুমিল্লা নানুয়ার দিঘীরপাড় পূজা মন্ডপে যারা পবিত্র কুরআন এর অপমান করেছে, বিচার বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে তাদের চিহ্নিত করা, তাদের পরিচয় জাতির সামনে পেশ করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করা।

(২) অন্যান্য সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারী ঘটনার মতো ইহা ও যেন দোষারুপের চক্রে পড়ে হারিয়ে না যায় তার যথাযথ ব্যবস্থা করা।

(৩)ভবিষ্যতে কেউ যেন দেশের শান্তি,উন্নতির ক্ষতি সাধন করতে না পারে,আইনশৃংঙ্খলা ব্যবস্থার অবনতি ঘটাতে না পারে এবং আল্লাহ রাসূল (সা:) কোরআন ও ইসলাম ধর্ম নিয়ে কোন ধরনের উস্কানিমূলক ও বেয়াদবীপূর্ণ আচরণ করতে না পারে তা নিশ্চিত করা।

(৪) পার্বত্য সন্ত্রাসীদের হাতে নিহত বান্দরবানের রোয়াংছড়ির ইমাম শহীদ মরহুম ওমর ফারুকের খুনিদের গ্রেফতার ও শাস্তির ব্যবস্থা করে পার্বত্য চট্টগ্রামকে সন্ত্রাসমুক্ত করা।

এসময় সংবাদ সম্মেলন বান্দরবান কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতীব মাওলানা আলাউদ্দিন ইমামী, বান্দরবান বাজার শাহী জামে মসজিদের খতীব মাওলানা এহসানুল হক আল মূঈন, জর্জকোট জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা হাফেজ মুজিবুল হক,কালাঘাটা কেন্দ্রীয় মসজিদের মাওলানা তারেক মোস্তফাসহ বান্দরবানের বিভিন্ন মসজিদের ইমাম ও খতীবসহ প্রেসক্লাবে কর্মরত সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলন শেষে কুমিল্লার নানুয়ার দিঘীরপাড় পূজা মন্ডপে পবিত্র কুরআন অবমাননাকারীদের শাস্তির দাবিতে বান্দরবানের জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন আয়োজকরা।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।