প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

আজ ৩১ অক্টোবর পার্বত্য জেলার জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল পাহাড়বার্তা’য় প্রকাশিত “যেভাবে ড্রাইভার থেকে পরিবহণ মাফিয়া টায়ার অমল !” শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছেন পরিবহন মালিক সমিতির নেতা ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ি অমল দাশ।

তিনি প্রতিবাদ লিপিতে বলেন,গত সোমবার (২৮ অক্টোবর) বান্দরবানে বিআরটিসি’র এসি বাস সার্ভিস চালু করলেও গত মঙ্গলবার দুপুরে চলাচলের সূচী নিয়মাতান্ত্রিক হয়নি দাবি করে বান্দরবান-চট্টগ্রাম সড়কে বিআরটিসি এসি বাস সার্ভিস কর্মীদের উপর হামলার নির্দেশ ও বাস বন্ধের হুমকি বিষয়টির অনাকাঙ্খিত, বিষয়টি ভুল বোঝাবুঝি মাত্র। যা আজ বৃহস্পতিবার বিকালে বান্দরবান পৌরসভা মিলনায়তনে বিআরটিসি ও পূরবী-পূর্বাণী মালিক সমিতির নেতা, পৌর মেয়র ইসলাম বেবী এবং সাংবাদিকদের সাথে বৈঠকে সুন্দর ভাবে অবসান হয়েছে।

প্রকাশিত সংবাদে বান্দরবান -চট্টগ্রাম সড়ক ও বান্দরবান-থানচি-রুমা ও রোয়াংছড়ি সড়কে অনন্ত ৮টি গাড়ির মালিক বলা হলেও এই তথ্য সত্য নয়। বিএনপির সভানেত্রী ম্যামাচিং এর একসময়ের অন্যতম সহযোগী হিসাবে আমাকে উল্ল্যেখ করা হলেও বিষয়টি মিথ্যা, আমি মূলত জেলা আওয়ামী লীগের একজন সদস্য মাত্র।

জেলার বিভিন্ন স্থানে আমার একাধিক জায়গার প্লটের কথা বলা হলে যা অতিরঞ্জিত এবং মিথ্যা। আমি ১৯৯১ সাল থেকে বান্দরবান শহরে সততা ও সুনামের সাথে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছি। আমি দেশের প্রতিষ্ঠিত রহিম আফরোজা এর বিভিন্ন কোম্পানির ডিলার। আমি কোন ভাবেই রাতারাতি কোটিপতি হয়নি।

সেই সাথে আমি এটাও উল্ল্যেখ করছি,আমি দীর্ঘদিন ধরে পরিবহণ মালিক সমিতির দায়িত্বে থেকে যাত্রী সেবায় যথাযথ দায়িত্ব পালন করে মূলত জনসেবাই নিয়োজিত থাকার পাশাপাশি, জেলার বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে সক্রিয় থেকে দেশ ও দশের কল্যানার্থে কাজ করছি। তাই আমি এই সংবাদের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়।

আরও পড়ুন
1 মন্তব্য
  1. Zahid বলেছেন

    আমি খুব সুন্দর ভাবে একটি কথা বলি, টায়ার অমল নিত্যান্ত এক জন ভদ্র ও ভালো মানুশ, সে অনেক কস্ট করে পরিশ্রম করে আজ এই যাইগায় এসেছে, আরো কোনো কিছু জানার থাকলে আমার কাছে থেকে জানতে পারবেন,

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।