প্রতিবন্ধী তঞ্চঙ্গ্যা নারীকে ধর্ষণের পর হত্যা, ছয় মাস পর গ্রেফতার তিন যুবক

বান্দরবানের আলীকদমে লাকাচিং তঞ্চঙ্গ্যাকে (৩২) ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ । প্রতিবন্ধী ওই নারীকে ধর্ষণের পর গলাটিপে হত্যা করে গাছে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে বলে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়া তিন যুবকই জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন । নিহত লাকাচিং উপজেলার আমতলী আশ্রয়ণ প্রকল্পের বাসিন্দা । হত্যাকাণ্ড ঘটনার পরের দিন নিহতের বোনের ছেলে ক্যানুমং আলীকদম থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন ।

গ্রেফতাররা হলেন- ত্রিমথীয় ত্রিপুরা, জয় কুমার তঞ্চঙ্গ্যা ও জন ত্রিপুরা । এরা সবাই আলীকদম উপজেলার বাসিন্দা ।

শুক্রবার বিকালে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠের মাধ্যমে এই তথ্য জানান আলীকদম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিক উল্লাহ ।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন আলীকদম থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ও আলীকদম থানার উপ পরিদর্শক মো নুর ইসলাম ।

পুলিশ জানিয়েছে, ২০১৮ সালের ২৫ শে নভেম্বর পুলিশ উপজেলার আমতলী অসুখ পাড়ার একটি গাছ থেকে লাকাচিং তঞ্চঙ্গ্যার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে । পরে পুলিশ লাশ ময়না তদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠায় । ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর নিহতের বোনের ছেলে ক্যানুমং বাদী হয়ে আলীকদম থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন ।

পরে দীর্ঘ ছয় মাস পর বিভিন্ন সময়ে ত্রিমথীয় ত্রিপুরা, জয় কুমার তঞ্চঙ্গ্যা ও জন ত্রিপুরা নামে তিনজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ । তারা প্রত্যেকেই হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে ।

গত ১৫ মে সকালে ওই তিনজনকে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ ।

মামলার বাদী ক্যানুমং তঞ্চঙ্গ্যা বলেন, আসল ঘটনা উদঘাটন ও আসামীদের গ্রেপ্তার করায় লাকাচিং এর আত্মা শান্তি পাবে । এখন আদালত আসামীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিবে এমনটাই আশা করি ।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।