বছরের শেষ দিনে কাপ্তাইয়ে হাজারোও পর্যটক

রাঙামাটি জেলার কাপ্তাইয়ের প্রতিটি স্থানেই রয়েছে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি। সবুজ পাহাড়, লেক, কর্ণফুলী নদী সহ আঁকা-বাকা পাহাড়ি পথ যে কোন মানুষের মনকে আকর্ষণ করে সহজেই। সেই প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে বছরের শেষ দিনে কাপ্তাইয়ে হাজারোও পর্যটকের আগমন ঘটেছে। পর্যটকের আনোগোনায় মুখরিত কাপ্তাইয়ের সব বিনোদন কেন্দ্র। হোটেল, রিসোর্ট, বিনোদন পার্ক সবখানেই মানুষ আর মানুষ

কাপ্তাইয়ের বালুরচর এলাকায় কাপ্তাই-চট্টগ্রাম সড়কের গাঁ ঘেষে অবস্থিত আকর্ষণীয় পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্র ‘প্রশান্তি পার্ক’। আজ শুক্রবার বেলা ১২ টায় গিয়ে দেখা যায়, এই কেন্দ্রে হাজারোও পর্যটকের আগমন ঘটেছে।

এই কেন্দ্রে ঘুরতে আসা চট্রগ্রাম সদরঘাট এলাকা হতে শীলা দাশ, নীল তুলি এই প্রতিবেদককে জানান, তাঁরা একসাথে ২০ জন বেড়াতে এসেছেন। কাপ্তাইয়ের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখে তাঁরা মুগ্ধ।

এই কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক মাসুদ হোসেন জানান, আমাদের এই বিনোদন কেন্দ্রে আগামী আজ হাজারোও পর্যটকের আগমন ঘটেছে। তিল ধরনের ঠাঁই নেই।

শুক্রবার (৩১ ডিসেম্বর) বেলা ২ টায় কাপ্তাই ওয়াগ্গা বিজিবি পরিচালিত প্যানোরোমা জুম রেস্তোরাঁয় গিয়ে দেখা যায়, এইখানেও শত শত পর্যটকের আনাগোনায় মুখরিত। অনেকে পরিবার পরিজন নিয়ে এসেছেন বেড়াতে। তাদের একজন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্নাস এর শিক্ষার্থী ইমন। তিনি জানান, বন্ধুদের আমাদের ১০ জনের টিম এইখানে বছরের শেষ দিন উপভোগ করতে এসেছি। কর্ণফুলি নদীর ধারে অবস্থিত এই বিনোদন কেন্দ্রটি খুবই সুন্দর। পার্কে বেড়াতে আসা চট্রগ্রামের শামীম দম্পতি জানান, প্রকৃতির অপরুপ সৌন্দর্য মন্ডিত কর্নফুলি নদীর পাশে অবস্থিত এই বিনোদন স্পটে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা পাওয়া গেছে। যা তাদের ভ্রমনকে আনন্দদায়ক করেছে।

কাপ্তাইয়ের অন্যতম বিনোদন কেন্দ্র কাপ্তাই নৌ বাহিনী ঘাঁটি শহীদ মোয়াজ্জেম কর্তৃপক্ষ পরিচালিত লেক প্যারাডাইসে গিয়ে দেখা যায় এইখানে শত শত পর্যটক। কোথাও তিল ধরনের ঠাঁই নেই। এইখানে ঘুরতে আসা রাঙামাটি শহর হতে হিমেল চাকমা, নবজ্যোতি তনচংগ্যা জানান,লেক প্যারাডাইস যেন একটি স্বর্গ, এই কেন্দ্র হতে একসাথে কাপ্তাই লেক এবং পাহাড়ের অপরুপ সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়।

কাপ্তাই উপজেলা বেসরকারি পর্যটন কেন্দ্র শিলছড়ি বনশ্রী পিকনিক কেন্দ্রের পরিচালক প্রকৌশলী রুবাইয়েত আক্তার চৌধুরী জানান,পর্যটন শহর কাপ্তাইয়ে প্রতিদিন ভ্রমন পিপাসুদের আগমন ঘটছে। বিশেষ করে সাপ্তাহিক ছুটির দিনে কোন রিসোর্ট খালি থাকে না। এই কেন্দ্রগুলো ছাড়াও সেনাবাহিনী পরিচালিত কাপ্তাইয়ের জীবতলী লেকশোর ও লেক প্যারাডাইসে প্রতিদিন ভীড় করছে পর্যটক।

কাপ্তাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ নাসির উদ্দীন জানান, কাপ্তাইয়ের অনেকগুলো বিনোদন কেন্দ্র আছে। প্রতিটি কেন্দ্রে প্রচুর পর্যটক আসে। তাই থানা পুলিশ এর পক্ষ হতে সবসময় পর্যটকদর নিরাপত্তা বিধান রাখার জন্য আমাদের পুলিশ সদস্যরা টহল আরোও জোরদার করেছেন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।