বাঁচতে চায় ক্যান্সার আক্রান্ত শিশু সুমাইয়া

মাত্র আড়াই বছরের শিশু সুমাইয়া। একসময় অন্য শিশুদের মতো সেও ছিল প্রাণোচ্ছল, হাসিখুশি। খেলাধুলা, ছোটাছুটি আর হইহুল্লোড়ে চারদিক মাতিয়ে রাখতো শিশুটি। মা-বাবার পাশাপাশি প্রতিবেশীদের সঙ্গে তার সখ্য একটু বেশিই। হঠাৎ তার শরীরের বেশ কয়েকটি স্থানে টিউমারের অস্থিত্ব ধরা পড়ে। এতে নিস্তব্ধ হয়ে পড়ে শিশুটির জীবনের সবকিছু। এই শিশুটি জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। এখন শুধু চোখে-মুখে বাঁচার আকুতি শিশুটির। সকলের সহযোগিতায় সুস্থ হয়ে সে আবারো ফিরতে চায় সকলের মাঝে। অসহায় শিশুটি চিকিৎসা সহায়তায় এগিয়ে আসার জন্য দেশের সরকার ও বিত্তবানসহ সব নাগরিকের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে তার পরিবারের পক্ষ থেকে।

বান্দরবান জেলার লামা পৌরসভা এলাকার চাম্পাতলী গ্রামের মাঝিপাড়ার বাসিন্দা জয়নাল আবেদীন। একটি বেসরকারী কোম্পানীতে স্বল্প বেতনে চাকুরী করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিলেন তিনি। কিছুদিন পূর্বে হঠাৎ তার আড়াই বছরের শিশু সন্তান সুমাইয়া বিনতে জয়নালের শরীরে দুরারোগ্যে ব্যাধি টিউমার থেকে ব্লাড ক্যান্সার ধরা পড়ে। প্রথমে ধারকর্জ করে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসার পরে অবস্থার কোনো উন্নতি না হওয়ায় সম্প্রতি তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

শিশুটি বর্তমানে এ হাসপাতালের শিশু বিভাগের অধ্যাপক ডা: একেএম রেজাউল করিমের অধীনে চিকিৎসাধীন। এ পর্যন্ত প্রায় ৫ লাখ টাকা চিকিৎসায় খরচ হয়ে গেছে। চিকিৎসক বলেন, অপারেশনের পাশাপাশি কেমোথেরাপি দিতে হবে শিশুটিকে। তারপর পূর্ণ সুস্থ হয়ে ওঠার সম্ভাবনা রয়েছে। তার এ রোগে বহু টাকার প্রয়োজন বলে চিকিৎসক মতামত দেন। কিন্তু জয়নাল আবেদীনের কোন কিছুই নেই। মোট কথা সমস্যায় জর্জরিত শিশুটির বাবা জয়নাল আবেদীনের পক্ষে এ ব্যয় বহন করা অসম্ভব। তাই জীবনপ্রদীপ রক্ষার জন্য দেশবাসীর কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন কোমলমতি শিশুটির বাবা জয়নাল আবেদীন।

শিশু সুমাইয়ার বাবার বিকাশ পারসনাল নাম্বার: ০১৮২৯২৮৮৮১৫ ও ০১৭৪৯৫৫০০৬৭ -এ মানবিক সাহায্য পাঠানো যাবে। শিশু সুমাইয়া ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে লামা পৌরসভার মেয়র মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, শিশু সুমাইয়ার চিকিৎসায় আমিও সহযোগিতা করেছি পাশাপাশি জীবন রক্ষার্থে সকল বিত্তবানদেরও সহায়তা কামনা করছি।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।