বান্দরবানের অধিকাংশ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নেই শহীদ মিনার

বান্দরবানের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার
বান্দরবানের বেশিরভাগ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নেই শহীদ মিনার ,কয়েকটি বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার থাকলে ও সেগুলোর অবস্থা জরাজীর্ণ । প্রতিবছর ২১শে ফেব্রুয়ারি আসলে অনেক শিশু শিক্ষার্থী শহীদ মিনারে ফুল দিতে পারলেও বেশিরভাগ শিক্ষার্থী বঞ্চিত হচ্ছে শহীদ দিবসে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো থেকে। ফলে বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা বঞ্চিত হচ্ছে শহীদ মিনার ও ভাষা আন্দোলনের সঠিক ইতিহাস জানা থেকে।
বান্দরবান পার্বত্য জেলায় রয়েছে ৪৩২ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, আর এই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কয়েকটিতে শহীদ মিনার থাকলে ও বেশিরভাগ বিদ্যালয়েই শহীদ মিনার নেই, আর যেসব বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার রয়েছে তার বেশিরভাগই রয়েছে অযত্ন আর অবহেলায় রয়েছে। বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে শহীদ মিনার না থাকায় ২১শে ফেব্রুয়ারিতে শহীদ মিনারে ফুল দিতে না পারায় শহীদ মিনার ও আমাদের ভাষা আন্দোলনের গৌরবময় ইতিহাস সর্ম্পকে অজ্ঞ থেকে যাচ্ছে বান্দরবানের প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর শিশু শিক্ষার্থীরা।
বান্দরবানের ফারুখ পাড়ার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী জিং এংময় বম বলেন, আমরা বইয়ে শহীদ মিনার দেখেছি কিন্তু বাস্তাবে দেখি নাই। আমাদের শহীদ মিনার দেখার খুব ইচ্ছে হয় কিন্তু আমাদের স্কুলে শহীদ মিনার নাই।
বাঘমোয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মো. কাউছার বলেন, বান্দরবাণে একটি শহীদ মিনার আছে কিন্তু আমাদের এদিকে কোন শহীদ মিনার নাই, যার কারণে আমরা ২১ ফেব্রুয়ারিতে শহীদ মিনারেও ফুল দিতে পারি না ।
বান্দরবান কালেক্টরেট স্কুল সিনিয়র শিক্ষক মো. আব্দুল হক বলেন, শহীদ মিনার আমাদের দেশ ও জাতির ভাষা আন্দোলনের স্মৃতিসৌধ । তাই আমরা মনে করি দেশের সঠিক ইতিহাস ও মুক্তিযুদ্ধ সর্ম্পকে ধারণা দিতে প্রাথমিক পর্যায় থেকে প্রতিটি বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার থাকা প্রয়োজন ,আর এর মধ্য দিয়ে ভাষা আন্দোলন ও দেশের মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস আগামী প্রজন্ম জানতে পারবে।
এদিকে বান্দরবানের জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ শহিদুল ইসলাম জানান, যেসব বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার নেই, সেসব বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার নির্মাণের জন্য উর্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে, প্রয়োজনীয় নির্দেশনা ও পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্ধ পেলে শীঘ্রই বান্দরবানের বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার নির্মাণ করা হবে।
বিদ্যালয়ের শিক্ষক,শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের দাবি ,শুধু আশ্বাস নয়, মহান ভাষা আন্দোলনে শহীদের অবদান ও সঠিক ইতিহাস সংরক্ষনে দ্রুত বিদ্যালয়গুলোতে শহীদ মিনার নির্মাণ করা জরুরী।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।