বান্দরবানের ত্রাণ নিয়ে মানুষের কাছে প্রশাসনসহ বিভিন্ন সংগঠন

করোনার ভাইরাসের সংক্রামক বিস্তার রোধে বান্দরবানের লামা,নাইক্ষংছড়ি ও আলীকদম উপজেলায় লকডাউন চলছে। গত ২৪ মার্চ রাত থেকে লকডাউনের কারণে তিন উপজেলার পাশাপাশি অন্যান্য উপজেলার জনজীবন ও স্থবির হয়ে পড়েছে। জরুরী প্রয়োজন ছাড়া কোন জনসাধারণ ঘরের বাইরে আসছে না। সড়কে বন্ধ রয়েছে সকল ধরণের যানবাহন, শুধুমাত্র পণ্যবাহী যানবাহন চলছে যা ও সীমিত আকারে।

জানা গেছে,বান্দরবানের প্রশাসনসহ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যর‌্য দুর্গম গ্রামে গ্রামে ঘুরে ঘুরে স্থানীয় বাসিন্দাদের জনসচেতনতা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে এবং করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতন থেকে সকলকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার আহবান জানাচ্ছে।

এদিকে আজ রবিবার (২৯ মার্চ) সকালে বান্দরবানের অসহায় শ্রমজীবী ও দিনমজুর পরিবারের ঘরে ঘরে গিয়ে ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছে বান্দরবানের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম। বান্দরবান সদর উপজেলার গোদার পাড়, নতুন পাড়া এলাকায় বিভিন্ন পরিবারের মধ্যে এসময় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১০ কেজি চালসহ তেল,ডাল,লবণ,সাবান প্রদান করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. শামীম হোসেন, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. হাবিবুল হাসান,সদর উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা শাহীনুর আক্তার, পৌর কাউন্সিলর অজিত কান্তি দাশসহ স্থানীয় জনসাধারন।

এসময় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক আমরা বান্দরবানের অসহায় শ্রমজীবি ও দিনমজুর পরিবারের মাঝে ঘরে ঘরে গিয়ে ত্রাণ বিতরণ করছি। করোনা পরিস্থিতির কারণে যাতে কেউ কষ্ট না পায়।

স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য মতে, বান্দরবানে এখনো কোন করোনা রোগী পাওয়া যায়নি, তবে বিদেশ ফেরত ১৫৯ জন কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে এর মধ্যে প্রাতিষ্টানিক রয়েছে ১০জন, আর হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ১৪৯জন। আর এই পর্যন্ত ৩৫ জনকে ছাড়পত্র প্রদান করেছে জেলার স্বাস্থ্য বিভাগ ।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।