বান্দরবানের পৌর মেয়র ইসলাম বেবী’র বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

বান্দরবান পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবীসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন বান্দরবান নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। আজ সোমবার (২৪ জানুয়ারি) জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ) মোহাম্মদ সাইফুর রহমান সিদ্দিক এ আদেশ দেন। বাদীপক্ষের আইনজীবী কাজী মহতুল হোসেন যত্ন এতথ্য নিশ্চিত করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, নারী নির্যাতন, ভাঙচুর, বেআইনি সমাবেশের অভিযোগে ২০২১ সালের ১৮ জুন মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবী, মাহাবুর রহমান, নাছির উদ্দিন, আশুতোষ দে, শেখ ফরিদ উদ্দিন, মো. মিলনসহ সাতজনকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন, রেহেনা আক্তার নামের এক নারী। আদালত অভিযোগ গ্রহণ করে ওসিকে (টুরিস্ট পুলিশ) তদন্তের নির্দেশ দেন। দীর্ঘ তদন্ত শেষে নাছির উদ্দিন, আশুতোষ দে, শেখ ফরিদ উদ্দিনের বিরুদ্ধে ঘটনায় জড়িত থাকার বিষয়ে আদালতে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়।

ওই প্রতিবেদনে নারাজি দেন বাদী রেহেনা আক্তার। পরে মামলার তদন্তে মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবীর সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়। আজ মেয়রসহ চারজনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

মামলার বাদী রেহেনা বেগম বলেন, আমাদের ভাই বোনদের জায়গায় আমাদের পিতার মৃত্যু হওয়ার আগে আমাদেরকে যার যার অংশ ভাগ দিয়েছেন। কিন্তু মেয়রের ক্ষমতা দেখিয়ে আমাদেরকে পুলিশ দিয়ে হয়রানি করান। আমি এর সুষ্ঠ বিচার চাই।

এই বিষয়ে বান্দরবান পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবীর একান্ত সহকারী ও গ্রেপ্তারি পরোয়ানা প্রাপ্ত আশুতোষ দে বলেন, রেহেনা আক্তার নামের এক নারী মামলা করেছিলেন। তবে গ্রেফতারি পরোয়ানার ব্যাপারে কিছু জানি না।

আরও পড়ুন
1 মন্তব্য
  1. suman বলেছেন

    যদি অপরাধী বলে প্রমাণিত হয় এবং কথিত সম্প্রীতির জেলা তবে এর যথাযথ বিচার হওয় উচিত। আইন আইন’ই এর কোন আইনে সম্প্রীতির কোন স্থান থাকা উচিত নয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।