বান্দরবানের ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা জলিল ও আকবর

তালিকা থেকে বাদ

প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা নন তারা। দীর্ঘ বিতর্কের পর এবার বান্দরবানে কথিত দুই ভুয়া মুক্তিযোদ্ধাকে তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হলো।

মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয় থেকে সারাদেশে ৪৯ জন মুক্তিযোদ্ধার গেজেট বাতিল করা হয়েছে।তারমধ্যে বান্দরবান জেলায় দুজন রয়েছে। তাদের নাম, আব্দুল জলিল,পিতা মৃত আব্দুল বারিক, গেজেট নং ৬৬ এবং আকবর আলী, পিতা মৃত আব্দুল জব্বার,গেজেট নং ৬৯। আব্দুল জলিল বান্দরবান শহরের আর্মি পাড়ার ও আকবর আলী শহরের হোটেল হিলবার্ড এর পাশের বাসিন্দা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় গেজেট প্রজ্ঞাপন- নং ৪৮.০০.০০০০.০০৪.৩৭.০০২.২০.৮৫০- জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল আইন, ২০০২ (২০০২ সনের ৮ নং আইন) এর ধারা অনুযায়ী প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধার তালিকা, সরকার এতদ্বারা Rules of Business 1996 এর Schedule- ( Allocation of business) এর তালিকা ৪১ এর ৫ নং ক্রমিক প্রদত্ত ক্ষমতাবলে নিম্নোক্ত আকারে ৪৯ মুক্তিযোদ্ধার গেজেট বাতিল করা হয়েছে। আর এই তালিকায় স্থান করে নেয় বান্দরবানের এই দুই মুক্তিযোদ্ধা।

এই ব্যাপারে বাদ পড়া কথিত মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল জলিল এর সাথে গত বুধবার পাহাড়বার্তা থেকে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় পাহাড় বার্তায় লিখিত আকারে বক্তব্য দেওয়া হবে। কিন্তু আজ শুক্রবার রাতেও তিনি কোন ধরণের লিখিত বক্তব্য পাঠাননি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, জলিল ও আকবর গত ২০১১সাল থেকে মুক্তিযোদ্ধা পরিচয়ে মুক্তিযোদ্ধা ভাতাসহ সরকারী বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা ভোগ করে আসছেন। এমনকি মুক্তিযোদ্ধা পরিচয়ে কৃষি ব্যাংকসহ বিভিন্ন ব্যাংক থেকে লোন নেন। তারা দুজনেই বান্দরবানের বাসিন্দা না হলেও বান্দরবানের মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় সু-কৌশলে স্থান করে নিয়ে বছরের পর বছর ধরে মুক্তিযোদ্ধা পরিচয়ে জেলায় প্রভাব বিস্তার করেন।

এই ব্যাপারে জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবুল কাশেম পাহাড়বার্তা’কে ফোনে বলেন, তারা দীর্ঘদিন ধরে মুক্তিযোদ্ধা পরিচয়ে সরকারী ভাতাসহ বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা নিয়েছে, অনতিবিলম্বে এসব ফেরত নেওয়া এবং তাদের যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা উচিত।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।