বান্দরবানে ইজিবাইকে ঘটছে প্রতিদিন দূর্ঘটনা

নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করেই বান্দরবানে চলছে স্থানীয় যাত্রী পরিবহণ সার্ভিস ইজিবাইক, যা টমটম নামে সবার কাছে পরিচিত। কিন্তু এই টমটমের সুবিধার চেয়ে অসুবিধা এখন বেশি হয়ে দাঁড়িয়েছে, সাধারণ জনসাধারণ সড়কে চলাচল করতে গেলেই পিছঁন দিক থেকে এসে হঠাৎ করেই এই টমটম গিয়ে শরীরে দিচ্ছে ধাক্কা, আর এতে সড়কে ছিটকে পড়ে প্রতিদিনই ঘটছে ছোট বড় নানা দুর্ঘটনা।

আজ ৭ সেপ্টেম্বর সোমবার সকালে বান্দরবান জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মোটর সাইকেল নিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছেন বান্দরবান সরকারি শিশু পরিবারের শিক্ষক তুষার চাক, হঠাৎ পিছন থেকেই দ্রূত গতিতে এসে টমটম দিয়ে ধাক্কা মেরে সড়কে ফেলে দেয় শিক্ষক তুষার চাককে। এই ঘটনার পরপরই স্থানীয় জনতা শিক্ষক তুষার চাক’কে সড়ক থেকে তুলে নিরাপদ স্থানে নিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে এবং টমটমের মালিককে না পেয়ে টমটমটি স্থানীয় ট্রাফিক বিভাগের কাছে হস্তান্তর করে। প্রধান সড়কে টমটমের এমন বেপরোয়া গতি এসময় উপস্থিত জনতাকে হতবাক করে।

এদিকে এই ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে স্থানীয় বাসিন্দারা। বান্দরবান সরকারি শিশু পরিবারের শিক্ষক তুষার চাক বলেন, বান্দরবানে ছোট সড়কে চলাফেরা করা এখন নিরাপদ নয়। ছোট শহরে টমটম বেড়ে গেছে আর সেই সাথে সাথে সড়কে চলাচল করার নিরাপত্তা ও কমে যাচ্ছে।

স্থানীয় আশরাফ চৌধুরী বলেন, বান্দরবানে টমটম চালকদের পোষাক ও আইডি কার্ড থাকা দরকার, আর তাদের চলাফেলা নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনের আরো নজরদারি বাড়ানো দরকার।

এদিকে সুত্রে আরো জানা যায়, বান্দরবানে টমটম চলাচলের সুবিধার্থে বান্দরবান পৌরসভার পক্ষ থেকে নতুন একটি কমিটি করে দিলে ও পুরাতন কমিটির সাথে নতুন কমিটির বিরোধ লেগেই রয়েছে।

সুপার বাইক অটোরিক্সা মালিক সমবায় সমিতির নতুন কমিটির সভাপতি মো.আজম বলেন, যে টমটমটি দূর্ঘটনা ঘটিয়েছে সে সমিতির অন্তভুক্ত চালক নয়, তার জন্য সমিতি কোন দায় নেবে না। এদিকে সমিতির অন্তভুক্ত চালক না হয়ে মূল সড়কে কিভাবে যাত্রী পরিবহণ করছে এই অপ্রাপ্তবয়স্ক চালকরা সে প্রশ্ন এখন জনমনে ?

এদিকে বান্দরবান পৌরসভার প্যানেল মেয়র দিলীপ বড়ুয়া জানান, বান্দরবান পৌরসভার অনুমোদন নিয়ে জেলা সদরে ৩২০টি টমটম চলাচল করছে। তিনি আরো জানান, বান্দরবানে টমটম চলাচলের সুবিধার্থে পৌরসভার পক্ষ থেকে নতুন একটি কমিটির অনুমোদন দেয়া হয়েছে এবং এই সকল টমটম পরিচালনার সমস্ত দেখভাল বান্দরবান ট্রাফিক পুলিশ নিয়ন্ত্রণ করে থাকে।

তিনি আরো বলেন, ১৮ বছরের নিচে কেউ বান্দরবানে টমটম চালাতে পারবেনা এবং আইন অমান্য করে কেউ সড়কে টমটম চলাচল করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।