বান্দরবানে ইয়াবা মামলায় ১ জনের যাবজ্জীবন

বান্দরবানে ইয়াবা মামলায় একজন আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।

আজ রবিবার (১০ এপ্রিল) দুপুর ১২টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ মো. এহ্সানুল হক এ রায় দেন। রায় ঘোষণার সময় সাজাপ্রাপ্ত আসামি মো. বেলাল উদ্দীন আদালতে উপস্থিত ছিলেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানার ৫নং পালংখালী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডস্থ কাস্টম উখিয়াঘাট এলাকার বাসিন্দা।

জেলা ও দায়রা জজ আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. কামরুল হাসান জানান, ২০২০ সালের ১৭ মে অনুমান ১৭.৫০ ঘটিকায় জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি থানাধীন ৩নং ঘুমধুম ইউপিস্থ টিভি টাওয়ারের বিপরীতে টেকনাফ উখিয়া সড়ক সংলগ্ন জনৈক মুরাদ সাহেবের রাবার বাগানের দক্ষিণ পাশে পাকা রাস্তার উপর আসামি মো. বেলাল উদ্দীনের দখল হতে ৯ হাজার ৬শত পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, যার ওজন ৯ শত ষাট গ্রাম উদ্ধার করা হয় এবং অপর আসামি মো: আয়াজ ও মো: আনোয়ার ইসলাম প্রকাশ জাবেদের বিরুদ্ধে উক্ত ইয়াবা ট্যাবলেট পরিবহন ও ক্রয়-বিক্রয়ে সহযোগিতা করার অভিযোগ করা হয়।

এই ঘটনায় একইদিন নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ঘুমধুম তদন্ত কেন্দ্রের এ.এস.আই মো. শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে আসামি মো. বেলাল উদ্দীন, মো: আয়াজ ও মো: আনোয়ার ইসলাম প্রকাশ জাবেদের বিরুদ্ধে নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় এজাহার দায়ের করলে পুলিশ ২০২০ সালের ২৪ ডিসেম্বর অভিযোগপত্র দাখিল করেন। রাষ্ট্রপক্ষের ৭জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণের পর আদালত এ রায় দেন।

দায়রা জজ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, আসামি মো. বেলাল উদ্দীন ৯ হাজার ৬ শত পিস ইয়াবা ট্যাবলেট নিজ হেফাজতে রাখার অপরাধ করে। এ ঘটনায় দায়রেকৃত মামলায় সাক্ষ্য-প্রমাণে বিষয়টি প্রমাণিত হয়। আদালতের বিচারক আসামি মো. বেলাল উদ্দীনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ প্রদান করেন। মামলার অপর আসামি মো: আয়াজ ও মো: আনোয়ার ইসলাম প্রকাশ জাবেদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আনীত অভিযোগ প্রমাণ করতে না পারায় তাদের অভিযোগে দায় হতে অব্যাহতি প্রদান করা হয়।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।