বান্দরবানে উকিল পরিচয় দিয়ে প্রতারণা : স্কুল শিক্ষক আটক

উলিক পরিচয় দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে বান্দরবানে সরকারী স্কুলের এক শিক্ষককে আটক করে পুলিশের কাছে সোর্পদ করেছে আইনজীবীরা। আটককৃত হলেন,উসাচিং মারমা (৩৬), সে সদর উপজেলার রাজবিলা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের বাঘমারা হেডম্যানপাড়া বাসিন্দা গংজক মারমার ছেলে। তিনি রুমা উপজেলার জৌথরামপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক।

মামলার বাদী জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ এমদাদ উল্লাহ জানান, আজ বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) ম্যাজিস্ট্রেট আদালত সংলগ্ন আইনজীবি সমিতি মিলনায়তনের পাশে এক মক্কেলের সাথে মামলার বিষয়ে তদবীর করার সময় সন্দেহ হলে তিনি তার পরিচয় জানতে চাইলে উসাচিং মারমা নিজেকে ঢাকা আইনজীবী সমিতির সদস্য ও হাইকোর্ট বিভাগের আইনজীবী পরিচয় দেন এবং সে বান্দরবানে আইনজীবী হিসেবে মামলা পরিচালনার জন্য আসছেন বলে জানান। এসময় তাকে তার পরিচয়পত্র দেখানোর জন্য বলা হলে সে বিভিন্ন ধরণের অসংলগ্ন কথা-বার্তা বলতে শুরু করেন। পরে অনুসন্ধানে জানা যায়, সে কোন আইনজীবী নয় এবং ঢাকার আইনজীবী সমিতির কোন সদস্যও নয়।

আরো জানা যায়, সে আইনজীবী না হয়েও দীর্ঘদিন ধরে মিথ্যা পরিচয় দিয়ে প্রত্যক্ষ ভাবে মামলার তদবির করে নিরহ লোকজন থেকে বিপুল পরিমান অর্থ আত্মসাৎ করে আসছে। পরে জিজ্ঞাসাবাদে উসাচিং মারমাও প্রতারণা করার কথা স্বীকার করেন।
ঘটনার সময় জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মোঃ খলিল ও বর্তমান অর্থ সম্পাদক এডভোকেট শামসুল আলম,পাঠাগার ও আইটি সম্পাদক এডভোকেট মোঃ আলমগীর চৌধুরী, এডভোকেট তৌহিদুর ইসলামসহ অনেক আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন। পরে উসাচিং মারমাকে আটক করে পুলিশের কাছে সোর্পদ করা হয়।

এব্যাপারে বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম জানান, প্রতারণার দায়ে উসাচিং মারমা নামে এক ব্যাক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক তার বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা দায়ের করেছেন।

এদিকে রুমা উপজেলার জৌথরামপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক জানান,উসাচিং মারমা ২০১১ সাল থেকে উক্ত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকালে স্কুলে গেলেও কাউকে কিছু না বলে চলে যায়।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।