বান্দরবানে এক পরিবারকে নিশ্চিন্ন করতে বাড়ীতে আগুন !

বান্দরবান শহরের কালাঘাটা নিবাসী নাজিম উদ্দিন এর পরিবার
বান্দরবানে এক পরিবারকে নিশ্চিন্ন করতে বাড়ীতে আগুন লাগিয়েছে প্রতিপক্ষ। জেলা শহরের কালাঘাটা বাজার এলাকায় শনিবার ভোর রাতে এ ঘটনা ঘটে। সন্দেহজনক হিসেবে আবু তাহের নামে একজনকে অভিযুক্ত করে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
কালাঘাটা নিবাসী নাজিম উদ্দিন জানান, প্রতিদিনের মতো তারা পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। তারা ঘুমন্ত অবস্থায় থাকাকালীন কে বা কারা দরজা ও পাশের বিদ্যুৎতের মিটারে আগুন লাগিয়ে দেয়। ভোরে ঘুম ভেঙ্গে যাওয়ার পর তার স্ত্রী রহিমা বেগম দেখেন দরজা ও বাসার মিটারের পাশে পোষ্টার পোড়া যাওয়ার চিহ্ন। তখন তিনি আশেপাশের লোকজনকে ডেকে বিষয়টি অবহিত করেন।
নাজিম আরো জানায়, জায়গা নিয়ে আবু তাহের নামে এক পরিবারের সাথে তাদের দ্বদ্ব রয়েছে। তাহেরের পরিবারের লোকজন আরো কয়েকবার মারধরসহ নানা প্রাণ নাশের হুমকি পর্যন্ত দিয়েছিল।
রহিমা বেগম জানান, ঘুম থেকে উঠে তিনি দরজা খুলে বাহিরে যান। তখনো তিনি জানতেন না যে তার বাসায় কে বা কারা আগুন দিয়েছিল। বাহির থেকে ঘরে ঢুকতে গিয়ে দেখে কাপড়ের পোড়া অংশ মাটিতে পড়ে আছে। কেরোসিনের গন্ধ নাকে আসার পর তিনি তার স্বামি নাজিমকে ঘুম ডেকে তোলেন এবং আশেপাশের লোকজনকে জড়ো করেন। রহিমা জানায় প্রতিপক্ষরা জানেন যে তাদের বাড়ীতে ১টি মাত্র দরজা। তাই পরিবারের সকলকে ঘুমের মধ্যে হত্যা করতে হলে দরজা ও তার পাশে আগুন লাগাতে হবে। সে ধরনের পরিকল্পনা নিয়ে প্রতিপক্ষ দরজার পর্দায় ও বিদ্যুতের মিটারে কেরোসিন ঢেলে দিয়ে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়।
তিনি আরো বলেন, রাতভর বৃষ্টি থাকায় প্রতিপক্ষের দেয়া আগুন পুরো ঘরে ছড়ায়নি। ফলে তারা স্বপরিবারে বেঁেচ আছেন। এ ঘটনায় তিনি প্রতিপক্ষ আবু তাহের পরিবার ও তাদের আত্মিয়স্বজনদের দোষারোপ করেছেন। সেই সাথে এ ধরনের নেক্কার জনক ঘটনার দোষিদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানান।
পার্শ্ববর্তী বাসিন্দা মোঃ ওসমান জানান, নাজিমের ঘরে আগুন ধরে উঠলে তার বাড়ীসহ আশেপাশের আরো অনেকের বাড়ী পুড়ে যেত। এ ঘটনাটি যারা ঘটাতে চেয়েছে তারা অমানুষের কাজ করেছে। তিনি দোষিদের সনাক্ত করে শাস্তির আওতায় নিয়ে আসার দাবী জানান।
নাজিম উদ্দিন জানান, প্রতিপক্ষের লোকজন দলেবলে শক্তিশালী। জমি নিয়ে আবু তাহেরের সাথে বিরোধ রয়েছে। জমির বিরোধ নিয়ে আমার পরিবারের সকলকে হত্যার ষড়যন্ত্র অমানবিক। তাই আবু তাহেরকে অভিযুক্ত করে থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।
অভিযোগ তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আজিজ জানান, তিনি অভিযোগ পেয়েছেন, অন্য স্থানে ডিউটি থাকায় ঘটনাস্থল সরেজমিন গিয়ে তদন্ত করা সম্ভব হয়নি। তবে যে কোন সময় তদন্ত করতে যাবেন বলে জানান এই কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।