বান্দরবানে ক্যান্সারে আক্রান্ত লুৎফুন্নেছার পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা প্রদান

বান্দরবানে ক্যান্সারে আক্রান্ত লুৎফুন্নেছার পরিবারকে অর্থ প্রদান
বান্দরবানে ক্যান্সারে আক্রান্ত লুৎফুন্নেছার পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা প্রদান করলেন সিটিজেন ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশন। শুক্রবার রাতে বান্দরবান কর্মচারী কল্যাণ সমন্বয় পরিষদের সভাকক্ষে মেরুদন্ডে ক্যান্সারজনিত রোগে আক্রান্ত মেধাবী শিশু লুৎফুন্নেছা( ১২) এর চিকিৎসায় জন্য লুৎফুন্নেছার পিতা মোহাম্মদ আইয়ুবের হাতে ৫০ হাজার টাকা তুলে দেন সিটিজেন ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশনের কার্যকারী কমিটির সদস্যরা।
আর্থিক সহায়তা প্রদান কালে সিটিজেন ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশনের আহবায়ক মো.আমজাদ হোসেন জানান,গত ৮ই জানুয়ারি আমি ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগী লুৎফুন্নেছার বিষয়টি শুনার পর ফেইসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেয় এবং সেখানে আমি ব্যাপক সাড়া পাই। প্রথম দিনই আমরা বেশ কয়েক হাজার টাকা বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে পেয়েছি। পরে আমাদের সদস্য বান্দরবান বাসষ্টেশন এলাকার কাতারে প্রবাসী মোহাম্মদ মুন্নার সহযোগিতায় কাতারে নাগরিক আহমেদ আজিজ আল সামেরী একক ভাবে ৩৩ হাজার ৫শ টাকা আমাদের কাছে পাঠিয়েছে।
সাহায্য পেয়ে লুৎফুন্নেছার বাবা আইয়ুব বলেন, মহান আল্লাহর কাছে আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি এজন্য যে। আমার মেয়ের চিকিৎসার জন্য এতোগুলো মানুষ কাজ করছে। আমি কখনো কল্পনাও করি নাই আমি কি করে আমার মেয়ের চিকিৎসা করাবো । আজ সিটিজেন ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশনের কারনে আমার মেয়ের চিকিৎসার জন্য অর্থ যোগাড় হয়েছে।
লুৎফুন্নেছার বাবা আরো বলেন, আমার মেয়ে বান্দরবান শহর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণিতে পড়ে। তার শ্রেনীতে রোল ১। সেই জীবনে কখনো ২য় হননি। গত ৩ মাস আগে শরীরে ধরা পরে ক্যান্সার। যদি এই রোগ শরীরে বাসা না বাধতো হয়তো জিপিএ ৫ নিয়েই পাস করে আজ ৬ষ্ঠ শ্রেনীতে থাকতো আমার মেয়ে। প্রাথমিক পর্যায়ে চিকিৎসার পর বর্তমানে ঢাকা বঙ্গবন্ধু হাসপাতালের ডাঃ আশিকুল ইসলামের তত্ত্ববধানে চিকিৎসাধীন রয়েছে সে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, সিটিজেন ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশনের আহবায়ক আমজাদ হোসেন,আনোয়ার হোসেন শামীম, মামুন চৌধুরী, মো. ওমর ফারুক, আবদুল্লাহ আল নোমান,আব্দুল মোমেন, আব্দুল মতিন, শাহীন আহমেদ মোহাম্মদ ইসমাইল,মাহমুদুল হাসান রিয়াদ, শুভময় দাশ,মোহাম্মদ কাউসার , লুৎফুন্নেছার প্রতিবেশী মোহাম্মদ দিদার প্রমূখ।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।