বান্দরবানে গোলাগুলিতে সেনা কর্মকর্তা ও জেএসএসের ৩ সদস্য নিহত

বান্দরবানের রুমা উপজেলার বথিপাড়ায় সেনাবাহিনীর সাথে সন্ত্রাসীদের গোলাগুলিতে সেনা সদস্যসহ ৪ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছে এক সেনা সদস্য। এসময় বিপুল পরিমান অস্ত্র ও সামরিক সরাঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহত সেনা কর্মকর্তার নাম মো. হাবিবুর রহমান। তি‌নি রুমা জোন (২৮) বীর রাইক্ষিয়াংলেক আর্মি ক্যাম্পের সি‌নিয়র ওয়া‌রেন্ট অ‌ফিসার ছিলেন। আহত সেনা সদস্যের নাম মো. ফি‌রোজ। তবে নিহত জেএসএস কর্মীদের নাম জানা যায়নি।

বুধবার (২ফেব্রুয়ারি) রাত ১১টার দিকে রুমার ব‌থিপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘ‌টে। অভিযানে সন্ত্রাসীদের ব্যবহৃত ১টি এসএমজি, ২৪৯ রাউন্ড তাজা গুলি, ৩টি এম্যোনিশন ম্যাগাজিন, ৩টি গাদা বন্দুক, গাদা বন্দুকের ৫ রাউন্ড গুলি, ৪ জোড়া ইউনিফর্ম এবং নগদ ৫২ হাজার ৯০০ টাকা জব্দ করা হয়।

সেনাবাহিনীর প্রেস বিজ্ঞপ্তির সূত্রে আরো জানা যায়, টহল দলটি উপজেলার বথি পাড়া এলাকায় গেলে একটি জুম ঘর থেকে সন্ত্রাসীরা অতর্কিত গুলি বর্ষণ করে। এ সময় সেনাবাহিনীর সদস্যরা পাল্টা গুলি চালালে ঘটনায় এক সেনা কর্মকর্তা সহ তিন জেএসএস কর্মী নিহত হন।

রুমায় উদ্ধার হওয়া অস্ত্র ও বিভিন্ন সামিরিক সরাঞ্জাম

এদিকে এই ঘটনার পর উক্ত এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে, এলাকায় নিরাপত্তা বাহিনীর টহল জোরদার করা হয়েছে, এই ঘটনার জের ধরে নিরাপত্তা বাহিনী তাদের অভিযান জোরদার করতে পারে বলে আভাস পাওয়া গেছে।

রুমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কাসেম বলেন, ঘটনায় এক সেনা কর্মকর্তা ও তিন সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে, তাদের লাশ উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হচ্ছে, ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

বাান্দরবান জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পাল জানান, গতকাল রাত সাড়ে ১০ টার সময় রুমা উপজেলার বথি ত্রিপুরা পাড়া বর্তমানে নতুন পাড়া এলাকায় সেনাবাহিনীর টহল টিম যাচ্ছিল । এ সময় সন্ত্রাসীরা সেনাবাহিনীর উপর অর্তকিত হামলা চালালে সিনিয়র একজন ওয়ারেন্ট অফিসার মৃত্যুবরণ করেন। সেনাবাহিনীর পাল্টাগুলিতে তিনজন সন্ত্রাসী নিহত হয় । রুমা থানায় সন্ত্রাসীদের লাশ নিয়ে আসা হয়েছে । তাদের নাম পরিচয় এখনও চিহ্ণিত করা যায়নি । চিহ্নিত করার চেষ্টা করছি।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।