বান্দরবানে জেএসএস নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরবারে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির নেতাকর্মীরা স্মারকলিপি প্রদান করছে
সংগঠনের নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির বান্দরবানের নেতা কর্মীরা বৃহস্পতিবার সকালে বান্দরবান প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করার প্রস্তুতি নিলে পুলিশ তাতে বাধা দেয়। পরে তারা জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করে।
সকাল থেকে পুলিশ জনসংহতি সমিতির মধ্যমপাড়াস্থ কার্যালয়টি ঘেরাও করে রাখে। নেতা কর্মীদের কার্যালয় থেকে বের হতে দেয়নি পুলিশ। ঐ এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। একজন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে পুলিশ জনসংহতি সমিতির কার্যালয়টি ঘেরাও করে রাখে।
সংগঠনের কেন্দ্রীয় যুগ্ন সম্পাদক আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কে এস মং মারমা জানান, গত এক বছর ধরে অপহরণ, চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন ঘটনায় জনসংহতি সমিতিকে দায়ী করে সংগঠনের অর্ধশত নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে একাধিক মামলা দায়ের করা হয়েছে। একের পর এক মামলার কারনে নেতা কর্মীরা গ্রেফতার ও হয়রানির ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। ১৫ নেতা কর্মী বর্তমানে জেল হাজেতে রয়েছে। এ অবস্থায় মামলা দায়েরের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকালে নেতা কর্মীরা বিক্ষোভ সমাবেশ করতে চাইলে পুলিশ তাতে বাধাঁ প্রদান করে।
পরে পুলিশের কড়া পাহারায় পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য সাধুরাম ত্রিপুরা মিল্টন,পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির বান্দরবান জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ক্যবামং মামা,বান্দরবান জেলা কমিটির তথ্য ও প্রচার সম্পাদক নিত্য লাল চাকমা, নোয়াপতং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শম্ভু কুমার তংচঙ্গ্যা,পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির বান্দরবান সদর থানা শাখার সভাপতি উচসিং মার্মা, সাধারণ সম্পাদক পুশৈথোয়াই মার্মা ,সদর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ওয়াইচিং প্রু মার্মাসহ সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরবারে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জন্য একটি স্বারকলিপি প্রদান করেন।
এসময় জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক, পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: আলী হোসেন, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার ইয়াছিন আরাফাত,নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো:আজিজুর রহমানসহ প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।