বান্দরবানে দুর্গাপুজার বিজয়া দশমী উদযাপন

বান্দরবানে শেষ হল সনাতন ধর্মালম্বীদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপুজা।
আজ মঙ্গলবার (৮অক্টোবর) সকালে দেবী দুর্গার বিসর্জনের দিনে শত শত সনাতন ধর্মালম্বীরা জড়ো হয় বিভিন্ন মন্দিরে মন্দিরে ও পুজামন্ডপে। এই সময় সনাতন ধর্মালম্বী পুস্পাঞ্জলি গ্রহণ করে আর নারীরা একে অপরের মুখে সিঁদুর ও তেল দিয়ে দেবীর বির্সজনের বার্তা জানায়। মন্ডপে মন্ডপে চলে ঢাক-ঢোল প্রতিযোগিতা।

এসময় কেন্দ্রীয় দুর্গাপূজা উদযাপন মন্ডপে উপস্থিত থেকে পুস্পাঞ্জলি গ্রহন করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কাজল কান্তি দাশ,ঠিকাদার ও সমাজ সেবক অমল কান্তি দাশ,বান্দরবান কেন্দ্রীয় দুর্গাপূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি লক্ষীপদ দাশ,সাধারণ সম্পাদক সৌরভ দাশ শেখর, অঞ্জন দাশ, তাপস কান্তি দাশ সহ জেলার সনাতনী সমাজের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দরা।

এসময় সার্বজনীন কেন্দ্রীয় দুর্গাপূজা উদযাপন মন্ডপে পুরোহিত্য করেন সার্বজনীন কেন্দ্রীয় দুর্গা মন্দিরের পুরোহিত বাবুল চক্রবর্ত্তী ও শংকর চক্রবর্ত্তী। এসময় উপস্থিত সনাতনী সমাজের ভক্তবৃন্দরা বেল পাতা, ফুল ও চন্দন দিয়ে পুস্পাজ্ঞলি গ্রহণ করে এবং পরিবার দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় প্রার্থনা করে বিজয়া দশমীর শুভেচ্ছা বিনিময় করে। আজ দুপুরে পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করেন। পরে বান্দরবানের বিভিন্ন পুজামন্ডপের প্রতিমাগুলো নিয়ে জড়ো হয় কেন্দ্রীয় দুর্গা পুজা উদযাপন পরিষদের পুজাস্থল রাজার মাঠে, আর শুরু হয় প্রতিমা বিসর্জনের কার্যক্রম।

প্রসঙ্গত,এবারে বান্দরবানে জেলা ও উপজেলা মিলে ২৭টি পুজামন্ডপে শারদীয় দুর্গাউৎসব উদযাপন হয় এবং মঙ্গলবার দশমী পালনের মধ্য দিয়ে সনাতনী সমাজের এই বৃহত্তম শারদীয় দুর্গোৎসবের সমাপ্তি হয়।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।