বান্দরবানে নদীতে নিখোঁজ ২ পর্যটক ভাই বোনের লাশ উদ্ধার

বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলার তারাছার বাধরা ঝর্ণার পা‌শে সাঙ্গু নদীতে ডুবে নিখোঁজ হওয়া ২ পর্যটকের লাশ উদ্ধার হয়েছে। আজ শনিবার (২৫ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় আদনিন বিনতে ও দুপুরে ২টায় নিখোঁজ আকিব এর মরহেদ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

উদ্ধার হওয়া আকিব আদনান ব্র্যাক ইউনির্ভাসিটির কম্পিউটার সায়েন্সের ২য় বর্ষের ছাত্র ও তার বোন আদনিন নারায়ণগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের এইসএসসি ১ম বর্ষের ছাত্রী। তারা নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৯নং ওয়ার্ডের ফতুল্লার ইচদারগ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী জহিরুল ইসলামের সন্তান। সন্তানদের নিখোঁজের খবরে ফতুল্লা থেকে ছুটে আসেম মা সাইদা শিউলী ও মামা শামীম রানা। বিষয়টা নিশ্চিত করেন, ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার নাজমুল আলম।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, বান্দরবা‌ন থেকে ১০ পর্যটক নৌকাতে সাঙ্গু নদীপথে বেতছড়ায় বেড়াতে আসেন। গতকাল (২৪ডিসেম্বর) রোয়াংছড়ির তারাছা বান্দুরা ঝর্ণা নামক এলাকায় সাঙ্গু নদীতে গোসল করতে গেলে ৩জন পানিতে তলিয়ে যায়। তাদের মধ্য থেকে মারিয়া ইসলামকে গতকাল স্থানীয়রা উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে প্রেরণ করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা.গুণজন চৌধুরী তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তখন (শুক্রবার বিকেল ৩টা) থেকে আহনাফ আকিব (২২) ও আদনীন বিনতে জহিরুল (১৯) নিখোঁজ ছিলেন। আজ (২৫ডিসেম্বর) তাদের মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

তাদের মামা শামীম আহম্মেদ জানান, তাদের মরদেহ আজ রাতেই নারায়ণগঞ্জে নিয়ে যাওয়া হবে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার (২৪ ডিসেম্বর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ থেকে বেড়াতে আসা ১০ পর্যটক সাঙ্গু নদীতে নৌকা ভ্রমণে গেলে তারাছা এলাকায় স্বচ্ছ পানি দেখে নদীতে গোসল করতে নামে। এসময় পরিবারের ১ সদস্য পানিতে ডুবে যেতে লাগলে তাকে বাঁচাতে গিয়ে পানিতে ডুবে যায় ভাই-বোনসহ অনেকে। পরে স্থানীয়রা ৩ জনকে উদ্ধার করলেও তাদের মধ্যে একজন মারা যায় এবং ২ জন নিখোঁজ হয়।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।