বান্দরবানে পরকীয়ার জেরে স্ত্রীকে হত্যা, স্বামী পলাতক

বান্দরবান সদর উপজেলার রাজবিলা ইউনিয়নের থংজমা পাড়ায় সিংয়াইনু মার্মা(২৭) নামে এক নারীকে কুপিয়ে হত্যা করে অপহরনের নাটক সাজিয়ে পালিয়েছে স্বামী।

বৃহস্পতিবার গভীর রাতে রাজবিলা ইউনিয়নের নিজ বাসায় তাকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনার পর থেকে মহিলার স্বামী রেথোয়াইনু মার্মা (৩৮) নিখোঁজ রয়েছে।

রেথোয়াইনু মার্মার বাড়ি রাজবিলা ইউনিয়নের থংজমা পাড়া গ্রামে। রেথোয়াইনু মার্মা ও সিংয়ানু মার্মা দম্পতির একটি ছেলে রয়েছে। দুইজনেরই এটি দ্বিতীয় বিয়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৩ টার দিকে তার স্ত্রীকে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা তাকে অপহরন করে নিয়ে যাচ্ছে বলে ফোন করে জানায় স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বারকে। খবর পেয়ে পাড়ার মানুষ বাসায় গিয়ে দেখে চিংম্যাইনু মার্মার লাশ মেঝেতে পড়ে আছে। এঘটনার পর থেকে স্বামী রেথোয়াইনু মার্মা নিখোঁজ রয়েছে এবং তার মোবাইল ফোনও বন্ধ রয়েছে। তবে রাতের বেলায় এলাকায় কোন গোলাগুলি ও চিৎকারের শব্দ শুনতে পাইনি এলাকাবাসি।

এলাকাবাসী জানান,নিহত সিংম্যানু মার্মার দ্বিতীয় বিয়ে এটি। তাদের মধ্যে বনিবনা ছিল না, প্রায় সময় জগড়া লাগতো। তাই ধারনা করা হচ্ছে, স্ত্রীকে হত্যার পর অপহরনের নাটক সাজিয়ে পালিয়েছে স্বামী।

এই এলাকার গ্রাম পুলিশের সদস্যা,রাত তিনটার স্ত্রীকে মেরে ফেলার খবর পেয়েছি,এসে ঘরের মধ্য নারীর লাশ দেখতে পাই। তবে সন্ত্রাসীরা যদি মারতো, তাহলে এলাকায় আলামত পাওয়া যেতো। সন্ত্রাসী গ্রামে আসলে এলাকার মানুষের কাছে খাবার খুঁজে খাই। তবে এলাকায় এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি।

রাজবিলা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের মেম্বার শৈসা চিং বলেন, সন্ত্রাসীদের হত্যার কোনো আলামত পায়নি, সন্ত্রাসীরা হত্যা করলে গুলি করতো। এলাকায় কিছু আলাম রেখে যেতো। কিন্তু এখানে এমন কিছু পাই নি।

বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. র‌ফিকুল ইসলাম ব‌লেন,রাজবিলার থংজমা পাড়া থেকে সকালে একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহতের মরদেহ বান্দরবান সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে বলে ওসি জানান।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।