বান্দরবানে পরিবহণ ধর্মঘট প্রত্যাহার

বান্দরবানের থানচি উপজেলার দূর্গম এলাকার প্রাতাপাড়ায় অবৈধ ইটভাটা করার দায়ে বান্দরবান সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুসকে বুধবার দিবাগত রাত একটায় ১০ বছরের কারাদণ্ড ও ১৭ লক্ষ টাকা জরিমানা এবং শারীরিক নির্যাতন করার প্রতিবাদে বান্দরবানে অনির্দিষ্ট কালের জন্য ডাকা পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে বান্দরবানের পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের বৈঠকের পর তারা এই ধর্মঘটের ডাক দেয়। পরিবহন ধর্মঘটের ফলে বান্দরবানের সাথে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার ও রাঙামাটির সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। পূর্ব ঘোষনা ছাড়ায় পরিবহণ ধর্মঘটের ফলে চরম ভোগান্তিতে পড়ে বান্দরবানে ভ্রমনে আসা পর্যটকসহ সাধারণ যাত্রীরা। পরে পরিবহণ মালিক সমিতির বৈঠকে ফলপ্রসূ আলোচনার কারনে ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে আরো জানা গেছে, গত মঙ্গলবার সকাল সাড়ে দশটায় সহকারী জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুন এএইচএন ইটভাটা মালিক আব্দুল কুদ্দুছ চেয়ারম্যানকে ফোনে করে জুডিশিয়াল আদালতে ডেকে নিয়ে তাঁর ব্যাক্তিগত মোবাইল জব্দ করেন এবং বান্দরবান পরিবেশ অধিদপ্তরের কেমিস্ট সামিউল আলম কে নিয়ে এএইচএন মালিকসহ জেলার থানচি উপজেলায় অবস্থিত ইটভাটাটির উদ্দেশ্যে রওনা হন। সেখানে দীর্ঘ অভিযান শেষে তাঁরা রাতে বান্দরবান শহরে ফিরে তদন্ত প্রতিবেদন লেখা শেষ করে রাত একটায় সাজার রায় ঘোষণা করেন।

পরিবেশ অধিদপ্তর বান্দরবান জেলার দায়িত্বশীল কেমিস্ট সামিউল আলম জানিয়েছেন, তাজিংডং ইটভাটার মালিকানা স্বীকার করায় তাকে আদালত এই রায় দিয়েছে। তিনি আরও বলেন, গত ২৩ ডিসেম্বর পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয় কারণ দর্শানোর নোটিশ এবং পরবর্তী শুনানি তে এই ইটভাটা কে জরিমানা করা হয়েছিলো এবং তিনমাসের ভেতর ইটভাটাটি অন্য কোনও জায়গায় স্থানান্তর করার নির্দেশ দেয়।

এই ব্যাপারে বান্দরবান পরিবহণ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ঝুন্টু দাশ বলেন,অভিযানে নেতৃত্বদানকারী সহকারী জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল আল মামুন এর প্রত্যাহার এর দাবীতে আমরা ধর্মঘট এর ডাক দিয়েছিলাম পরে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, বান্দরবান সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস বান্দরবানে শৈল শোভা পরিবহণ মালিক সমিতির সভাপতি হিসাবে কর্মরত আছেন।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।