বান্দরবানে পর্যটক ধর্ষণ মামলার আসামী রাসেলকে কাল আদালতে তোলা হবে

ধর্ষক ড্রাইভার রাসেল
বান্দরবানের বহুল আলোচিত পর্যটক ধর্ষণ মামলার মূল আসামী চাঁদের গাড়ির ড্রাইভার মো: রাসেল’কে কাল মঙ্গলবার আদালতে তোলা হবে। বান্দরবান সদর থানার এসআই দুর্জয় বিশ্বাস পাহাড়বার্তাকে এই তথ্য জানান।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা থেকে বন্ধুকে নিয়ে বান্দরবান ঘুরতে আসা এক তরুণী পর্যটককে হোটেলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে মূল অভিযুক্ত চাঁদের গাড়ির ড্রাইভারকে সোমবার দুপুরে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার ফাসিয়াখালী থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতের নাম মো: রাসেল। রাসেল চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলা পশ্চিম নুলুয়া এলাকার মৃত সোনা মিয়ার সন্তান।
পুলিশ জানায়, সোমবার দুপুরে বান্দরবান সদর থানার অফিসার ইন-চার্জ মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম চৌধুরীর নেতৃত্বে এসআই দুর্জয় বিশ্বাস, এসআই প্রনব কান্তি দাশ এবং মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোঃ মারুফুর রহমানসহ পুলিশের একটি দল কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার ফাসিয়াখালী অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে। সে বান্দরবানের মেঘলা পর্যটন এলাকার তালুকদার পাড়ায় বসবাস করতো, তার প্রয়াত বাবা সোনা মিয়া এক সময় জেলা শহরে রিক্সা চালাতো, আর পরিবার নিয়ে বসবাস করতো শহরের ক্যাউচিংঘাটা এলাকায়।
আরো জানা গেছে, ঢাকা থেকে বেড়াতে আসা এই তরুণী গত ২৬ ফেব্রুয়ারি তার বন্ধু হেলাল উদ্দিনকে নিয়ে শহরের বাসস্টেশনের একটি রেস্টুরেন্ট থেকে নাশতা আনতে যান। বন্ধু নাশতার জন্য রেস্টুরেন্টে প্রবেশ করলে বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা এই তরুণীকে তার বন্ধুকে পুলিশ নিয়ে গেছে বলে বলেন, ড্রাইভার। পরে ড্রাইভার তরুণীকে থানায় নেবেন বলে পর্যটন মোটেলের ২০৫ নম্বর রুমে নিয়ে গিয়ে ধর্ষন করেন। পরে তরুণীর বন্ধু হেলাল উদ্দিন পুলিশকে ঘটনা অবহিত করলে পুলিশ পর্যটন মোটেল থেকে এই তরুণীকে উদ্ধার করে।
আরো জানা গেছে, এই ঘটনায় বান্দরবান সদর থানার একটি মামলা দায়ের করলে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি পর্যটন মোটেলের নিরাপত্তা প্রহরী ওসমান গণিকে গ্রেফতার করার পর ঘটনার মূল হোতা ড্রাইভার রাসেল পালিয়ে যায়। এই ঘটনা সংবাদ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে পর্যটকদের মধ্যে ভীতি ছড়িয়ে পড়ে,ফলে আশঙ্খাজনক ভাবে বান্দরবানে পর্যটক আসা কমে যায়।
এই ব্যাপারে বান্দরবান সদর থানার অফিসার ইন-চার্জ মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের ঘটনার সত্যতা সম্পর্কে প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে রাসেল, তাকে আদালতে যথাযথ নিয়মে সোপর্দ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।