বান্দরবানের পাহাড়ি গ্রামে অগ্নি সংযোগের ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ

পার্বত্য চট্টগ্রামের চার গণতান্ত্রিক পাহাড়ি সংগঠন আজ শুক্রবার ২২ নভেম্বর ২০১৯ এক যুক্ত বিবৃতিতে বান্দরবান সদর উপজেলার কুহালং ইউনিয়নের কাট্টলী পাড়ায় স্বার্থবাদী মহলের মদদপুষ্ট বিদেশী সশস্ত্র সংঠন কর্তৃক হামলা ও বাড়িঘরে অগ্নি সংযোগের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে।

গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের সভাপতি অংগ্য মারমা, ইউনাইটেড ওয়ার্কার্স ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের সভাপতি সচিব চাকমা,পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সভাপতি বিপুল চাকমা ও হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সভাপতি নিরুপা চাকমা দেশের সংবাদ মাধ্যমে উক্ত বিবৃতি প্রদান করেন।

বিবৃতিতে তারা বলেন,গত বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে তথাকথিত এএলপির সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা কাট্টলী পাড়ায় এসে ত্রাস সৃষ্টি করে এবং অসহায় দরিদ্র গ্রামবাসীদের ৭টি বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে বাড়ির সব জিনিষপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

হামলায় যাদের বাড়িঘর পুড়িয়ে দেয়া হয় তারা হলেন ধারজ চন্দ্র কার্বারী, মোহিনী রঞ্জন চাকমা, জ্ঞান লাল চাকমা, সুপংকর চাকমা, বলি চাকমা, রংঙে চাকমা (প্রাক্তন ভূটান পাড়া কার্বারী) ও রহিন চাকমা।

একটি শক্তিশালী মহলের পৃষ্ঠপোষকতা ছাড়া কতিপয় দুর্বৃত্তের পক্ষে ধারাবাহিকভাবে একের পর এক খুন, অপহরণ ও চাঁদাবাজিসহ এ ধরনের সন্ত্রাসী অপকর্ম চালিয়ে যাওয়া সম্ভব নয় বলে নেতৃবৃন্দ মন্তব্য করেন এবং অবিলম্বে তথাকথিত এএলপি সন্ত্রাসীদের মদদদান বন্ধ ও এর সকল সদস্য ও তাদের মদদদাতাদের গ্রেফতার ও বিচার এবং তাদের দ্বারা এ যাবত নির্যাতিত ও ক্ষতিগ্রস্তদের যথোপযুক্ত ক্ষতিপূরণ প্রদানের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান।

আরও পড়ুন
Loading...