বান্দরবানে ফের আওয়ামী লীগ নেতাকে জবাই করে হত্যা

আলমগীর সিকদার
বান্দরবানের লামা উপজেলার সড়ই ইউনিয়নে এক আওয়ামী লীগ নেতাকে গলা কেটে জবাই করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। নিহতের নাম আলমগীর সিকদার (৩৮)। সে লামা উপজেলার সড়ই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক বলে জানা গেছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত ১১দিকে লামার সড়ই ইউনিয়নের হাসনাপাড়া এলাকার বাগানে যাওয়ার সময় ১২ থেকে ১৫জন শসস্ত্র সন্ত্রাসী তাকে মোটর সাইকেল নিয়ে ঘেরাও করে। পরে মোটর সাইকেলের উপর তাকে ধরে গলা কেটে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। ঘটনার পর স্থানীয়রা সন্ত্রাসীদের বাজাজ এপাসি মডেলের সাদা মোটর সাইকেল নাম্বার চট্টমেট্রো-হ ১৪-৮১৪১সহ ২টি মোটর সাইকেল আটক করলেও ঘটনার সাথে জড়িত কাউকে আটক করতে পারেনি। ঘটনাস্থলে হত্যাকান্ডে ব্যবহার করা কয়েকটি দা পড়ে থাকতে দেখা যায়।
এই ব্যাপারে লামা পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম পাহাড়বার্তাকে জানান, সন্ত্রাসীরা অতর্কিত এসে তাকে হত্যা করে চলে যায়, লাশ এখনও ঘটনাস্থলে পড়ে আছে।
আলমগীর সিকদার লামার সড়ই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো: আলীর সন্তান। সন্ত্রাসীদের হাতে জনপ্রিয় এই জনপ্রতিনিধির সন্তান খুন হওয়ার ঘটনায় উপজেলা জুঁড়ে আতংক বিরাজ করছে।
এই ব্যাপারে লামা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আপ্পেলা রাজু নাহা পাহাড়বার্তাকে বলেন, কারা এই হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে আমরা জানতে পারিনি, লাশ উদ্ধারের জন্য আমরা ঘটনাস্থলে যাচ্ছি।
প্রসঙ্গত, গত সোমবার বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলার তারাছা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মং মং থোয়াই মার্মাকে বান্দরবান-রোয়াংছড়ি সড়কে গুলি করে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।