বান্দরবানে ফের করোনায় আক্রান্ত ১৮ জন : মোট ১৮১ জন

বান্দরবান পার্বত্য জেলার ৭টি উপজেলায় করোনায় নতুন আক্রান্ত হয়েছে ১৮ জন। আর এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছে মোট ১৮১ জন। এদের মধ্যে জেলা সদরে ৯ জন, আলীকদম উপজেলায় ৫, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় ৩ জন ও রোয়াংছড়ি উপজেলায় ১ জন রয়েছে। আজ মোট ১৮ জনের রিপোর্ট আসলেও এরমধ্যে জেলা প্রশাসক দাউদুল ইসলাম এর ২য় দফায় আজ রিপোর্ট আসে।

আজ শনিবার (২০ জুন) রাত ৮ টার দিকে জেলার সিভিল সার্জন ডা: অং সুই প্রু মারমা পাহাড়বার্তাকে এ তথ্য জানান।

বান্দরবান সদরের আক্রান্তরা হলো বালাঘাটার লাকী তংচঙ্গ্যা (২৯), বালাঘাটার মংসাখাই মার্মা (৬৫),সোরেন্দ্র লাল ত্রিপুরা (৫৮), বালাঘাটার বাসু দেব দাস (৩৮), বালাঘাটার আজগর হোসেন (৩৪), জেলা শিক্ষা অফিসের রাবেয়া আক্তার (৩৪), বনরুপা পাড়ার (স্বাস্থ্যকর্মী) জুয়েল বিশ্বাস (৩৭), ডাক্তার আলমগীর (৩১) ও স্টেডিয়াম এলাকার (স্বাস্থ্যকর্মী) শহীদুল ইসলাম টিপু (৩৯)।

জেলার আলীকদম উপজেলায় আক্রান্তরা হলেন, সোনালী ব্যাংকের যথাক্রমে এমডি ইসমাইল (২৭), ডং থোয়াই (৫১), গিয়াস উদ্দিন (৩৭), আমিনুল বাবর (২৪),আরিফ হোসাইন (২৫)। জেলার রোয়াংছড়ি উপজেলায় আক্রান্ত হলেন, আরিফ (২৯)। জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় আক্রান্ত হলেন, এসএম সাবায়েত হোসেন (৩০), টাকিয়া (১৮), থোয়াই হ্লা চিং মার্মা (৪৮)।

স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, আক্রান্তরা বেশির ভাগ জেলা সদরের বাসিন্দা। ইতোমধ্যে জেলায় আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন মাত্র ৩২ জন। স্বাস্থ্য বিধি না মানা আর অসচেতনতার কারণেই জেলার সব উপজেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে।

বান্দরবানের সিভিল সার্জন ডা:অং সুই প্রু মারমা আরো জানান, এই পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে নাইক্ষ্যংছড়িতে একজন মারা গেছে। জেলায় করোনা রোগী বাড়ছে, এটা আমাদের জন্য খুবই উদ্বেগজনক। মানুষজন সচেতন এবং সতর্ক হয়ে স্বাস্থ্যবিধি না মানলে সংক্রমণ রোধ করা কোনো ভাবেই সম্ভব নয়।

প্রসঙ্গত, গত ১০ জুন করোনা সংক্রমণ রোধে বান্দরবান সদর উপজেলা ও রুমা উপজেলাকে রেড জোন ঘোষণা করে লকডাউন করে জেলা প্রশাসন। ১৮১ জন করোনা রোগীর মধ্যে পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য, আওয়ামী লীগ নেতা লক্ষীপদ দাশ এর যৌথ পরিবারের মোট ১৬ জন করোনায় আক্রান্ত।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।