বান্দরবানে মৃত্তিকা দিবস

“আমাদের ভবিষ্যৎ,মৃত্তিকার ক্ষয়রোধ” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বান্দরবানে বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে আজ বৃহস্পতিবার (৫ডিসেম্বর) সকালে বান্দরবান মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট এর আয়োজনে বান্দরবান জেলা প্রশাসকের কার্যালয় প্রাঙ্গন হতে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে আবার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এসে সমবেত হয়। এসময় শোভাযাত্রায় ব্যানার ও প্ল্যার্কাড হাতে নিয়ে বিভিন্ন শ্রেনীপেশার জনসাধারণ অংশ নেয়।

পরে দিবসটি উপলক্ষে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বান্দরবান কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ড. এ কে এম নাজমুল হকের সভাপতিত্বে এসময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো: দাউদুল ইসলাম। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো:শামীম হোসেন,সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এ কে এম জাহাঙ্গীর,বান্দরবান মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট এর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো:মাহবুবুল ইসলাম, বান্দরবান যুব উন্নয়ন অদিদপ্তরের সিনিয়র প্রশিক্ষক দেওয়ান মুহাম্মদ আবুজাফর,সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো:ওমর ফারুকসহ মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট এর কর্মকর্তা ও বিভিন্ন সরকারি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্র্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, মাটি একটি অনবায়ন যোগ্য ও সসীম প্রাকৃতিক সম্পদ। একে বারবার নবায়ন করা যায় না। ভূমিক্ষয় হওয়ার ফলে কৃষকরা সবচেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। আবাদযোগ্য জমির পরিমাণ এতে দিন দিন হ্রাস পাচ্ছে। বিভিন্ন কারণে আজকে ধংসের মুখে পতিত হচ্ছে মৃত্তিকা সম্পদ।

এসময় বক্তারা আরো বলেন, খাদ্য ও বাসস্থানের প্রধান ও অন্যতম মাধ্যম এই মৃত্তিকা, তাই এর নিরাপত্তার জন্য চাই সঠিক ব্যবস্থাপনা। মৃত্তিকার উন্নয়ন মানেই ফসলের গুণগত মানের উন্নতি এবং তা নিশ্চিত করে বিশ্বব্যাপী খাদ্য নিরাপত্তা। একই সাথে জলবায়ু পরিবর্তন রোধের জন্য মৃত্তিকা ব্যবস্থাপনাও একান্তভাবে জরুরী। মাটি,মাটির উর্বরতা ও খাদ্য নিরাপত্তা হোক পরিবেশবাদীদের ভবিষ্যৎ চিন্তা ও বিজ্ঞানীদের আগামির গবেষণার বিষয়।

এসময় বক্তারা ভূমি ক্ষয় নিয়ন্ত্রণ করে ভবিষ্যৎকে রক্ষা করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।

আরও পড়ুন
Loading...