বান্দরবানে লকডাউন কার্যকর করতে ৯ টি ওয়ার্ডে স্বেচ্ছাসেবকরা মাঠে

বান্দরবানে লকডাউন কার্যকর করতে পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে দেড় শতাধিক স্বেচ্ছাসেবক কাজ করতে মাঠে নেমেছে। আজ ২৫জুন (বৃহস্পতিবার) সকাল থেকে বান্দরবানের ৯টি ওয়ার্ডে বান্দরবান পৌরসভার কাউন্সিলরদের নেতৃত্বে গঠিত কমিটির বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবকরা কাজ শুরু করে ।

বান্দরবান জেলা প্রশাসন থেকে নির্দেশনা আসার পরপরই বান্দরবান পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে লকডাউন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা ও জনসাধারণের সুরক্ষা করার জন্য স্বেচ্ছাসেবকরা সড়কে অবস্থান করে অযথা ঘোরাফেরা করা জনসাধারণকে বাড়ী চলে যেতে বাধ্য করে।

বান্দরবান পৌরসভার সুত্রে জানা যায়, বান্দরবানে করোনা সংক্রামক প্রতিরোধে আগামী ২১ দিনের জন্য লকডাউন ঘোষনা করেছে জেলা প্রশাসন, আর এই লকডাউন কার্যকর করতে পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে দেড় শতাধিক স্বেচ্ছাসেবক কাজ করবে। পৌরসভার ১,২,৩ নং ওয়ার্ডে ৩০ জন, ৪ নং ওয়ার্ডে ১০জন, ৫ নং ওয়ার্ডে ১৫ জন, ৬নং ওয়ার্ডে ২৫ জন,৭নং ওয়ার্ডে ১০ জন,৮নং ওয়ার্ডে ২৫ জন ও ৯নং ওয়ার্ডে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করবে ৩০ জন।

নির্ধারিত এই স্বেচ্ছাসেবকরা বান্দরবান পৌরসভার অনুমোদিত পরিচয়পত্র বহন করবে এবং প্রতিটি ওয়ার্ডের জনগণের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি, মাস্ক ব্যবহার করার তাগিদ দিবে এবং সেই সাথে এলাকায় কারো কোন জরুরী দ্রব্য বা ওষুধ প্রয়োজন হলে তা বাড়ী গিয়ে সরবরাহ করবে এবং গ্রাহক সেই দ্রব্য বা ওষুদের মুল্য স্বেচ্ছাসেবককে প্রদান করবে।

বান্দরবানের বালাঘাটা বাজারে স্বেচ্ছাসেবক এর দায়িত্ব পালন করা মো:হাকিম জানান, আমরা এই দু:সময়ে নিজেদের জীবন বাজি রেখে মানুষের মঙ্গলের জন্য বিভিন্ন ওয়ার্ডে দায়িত্ব পালন করবো। যতদিন স্বেচ্ছাসেবক এর প্রয়োজন থাকবে ততদিন আমরা মাঠে থেকে কাজ করবো।

এদিকে বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো:শহিদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন,বান্দরবানে করোনা রোগী বেড়ে যাওয়ায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বান্দরবান পৌরসভাকে লকডাউন ঘোষনা করেছে। আর এই লকডাউনে পুলিশের পাশাপাশি প্রতিটি ওয়ার্ডে পৌরসভার নির্ধারিত স্বেচ্ছাসেবকরা কাজ করবে।

বান্দরবান পৌরসভা মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবী জানান, আজ থেকে আগামী ২১দিন কঠোরভাবে লকডাউন কার্যকর করা হবে। কাউকে অযথা সড়কে চলাচল করতে দেয়া হবে না।

মেয়র আরো জানান, বান্দরবান পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে ১শত ৫০জন স্বেচ্ছাসেবক এখন থেকে কাউন্সিলরদের মাধ্যমে কাজ করবে এবং তারা ওয়ার্ডের জনসাধারণের বিভিন্নভাবে সহায়তা করবে। কেউ অযথা সড়কে বের হয়ে ঘোরাঘুরি করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, বান্দরবানে করোনা রোগী বৃদ্ধি পাওয়ায় গত ১০জুন (বুধবার) দুপুর ১২টার থেকে সদর উপজেলা ও রুমা উপজেলাকে রেড জোন ঘোষনা করে প্রশাসন আর আজ থেকে বান্দরবান পৌরসভা ও লামা উপজেলাকে নতুনভাবে ২১ দিনের জন্য লকডাউন ঘোষনা করে জেলা প্রশাসন।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।