বান্দরবানে লাফিয়ে বাড়লো করোনা আক্রান্ত : নতুন ২৯, মোট ১৩৯ জন

বান্দরবান পার্বত্য জেলার ৭টি উপজেলায় করোনায় নতুন আক্রান্ত ২৯জনসহ এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছে শিশুসহ ১৩৯ জন।

জেলায় আক্রান্তরা হলেন,রুহুল আমিন (৬০), অনিল চাকমা(৪০),রুপসা চাকমা(৩৫),এমডি আরমান (২০),এমডি কামরান (১৮),ইজ্জত জাহান (৪৪),সুভ্রা দাস (২৯),পঙ্কজ দাস (৩৫), উমা দাস, মোশারফ হোসেন (৪০),ক্যাও ক্যাও চিং (৩২),মানিক মিয়া (১৮),মোতালেব হোসেন (৩০),এমডি সাইদুল ইসলাম (১৭),প্রণব দাস (৪২),শুভ দাস (২৪),মোস্তাফা নাবিল (১৩) ফায়ার সার্ভিস এলাকা,শাফিন (৮) ফায়ার সার্ভিস,শিল্পী বেগম,আর্মি পাড়া,ভবন কুমার দে (৬০) মাছ বাজার,সালমা (১৩) ডিসি অফিস,এমডি সাধন (২৪)। আর্মি পাড়া জেলা সদরে ২২ জন আক্রান্ত।

উল্লেখ্য যে, এদের মধ্যে পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য, আওয়ামী লীগ নেতা লক্ষীপদ দাশ এর পরিবারের পঙ্কজ দাস, প্রনব দাশ, শুভ দাশ ও উমা দাশ মোট ৪ জন আক্রান্ত।
গত বুধবারের প্রতিবেদনে লক্ষীপদ দাস, স্ত্রী সীমা দাস ও মেয়ে শ্রিয়া দাস এর করোনা পজেটিভ আসে। এই পরিবারের মোট আক্রান্ত ৭ জন, যা বান্দরবানে একই পরিবারের এতজন সদস্য আক্রান্ত হওয়ার এটাই প্রথম রেকর্ড।

জেলার লামা উপজেলায় ৭ জন আক্রান্তরা হলেন,নূর হোসেন(২৭),হাসানুজ্জমান (৩১),এমডি জসিম উদ্দিন (৪৮),এমডি আরাফাত (১৮),এমডি মিজানুর রহমান (৩০),আবুল কাসেম (৪৩) ও নাঈম উদ্দিন (৩৫)।

আজ বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) রাত পৌনে ১০টার দিকে জেলার সিভিল সার্জন ডা: অং সুই প্রু মারমা পাহাড়বার্তাকে এ তথ্য জানান।

স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, আক্রান্তরা বেশির ভাগ জেলা সদরের বাসিন্দা। ইতোমধ্যে জেলায় আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন মাত্র ৩২ জন। স্বাস্থ্য বিধি না মানা আর অসচেতনতার কারণেই জেলার সব উপজেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে।

বান্দরবানের সিভিল সার্জন ডা:অং সুই প্রু মারমা আরো জানান, এই পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় একজন মারা গেছে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।