বান্দরবানে সফল জননী হিসাবে জয়িতা হলেন ইয়াছমিন আক্তার রুবি

জয়িতা ইয়াছমিন আক্তার রুবি
জয়িতা অন্বেষনে বাংলাদেশ এবার বান্দরবান জেলাতে ৫ সফল নারীর মধ্যে সফল জননী হিসেবে জয়িতা সম্মাননা পেলেন ইয়াছমিন আক্তার রুবি। অপর ৪ নারীরা হলেন অর্থনৈতিক ভাবে স্বাবলম্বী জাহান আরা বেগম, শিক্ষা ও চাকুরী ক্ষেত্রে সফল নারী ইন্দিরা ত্রিপুরা, নির্যাতনের বিভিষিকা মুছে সফল নারী সালেহা বেগম এবং সমাজ উন্নয়নে অবদান রাখায় সফল নারী পাইংম্রা উ মারমা।
বিভিন্ন কেটাগরিতে সফল ৫ জয়িতাকে আজ রবিবার দুপুরে বান্দরবান জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে সংবর্ধনা দেয়া হয়। উক্ত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মোঃ দাউদুল ইমলাম। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে পুলিশ সুপার মোঃ জাকির হোসেন মজুমদার, সিভিল সার্জন ডাঃ অং সুই প্রু, জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা আতিয়া চৌধুরীসহ বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
জয়িতা সম্মাননা পাওয়া সফল জননী ইয়াছমিন আক্তার রুবি জানান, চরম অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে তিনি তার ৩ সন্তানকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করেছেন। তারমধ্যে বড় ছেলে কাজী সালাহ উদ্দিন কাদের প্রিন্স ও কাজী তানজিনা এলিন এ্যাডভোকেটশীপ করেছেন এবং ছোট মেয়ে কাজী তাসলিমা নাসরিন জেরিন চট্টগ্রাম বিশ্ব বিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে কর্মরত। সামাজিক ও পারিবারিক প্রতিকুল অবস্থার মধ্যেও তিনি তার সন্তানদের সু শিক্ষায় শিক্ষিত করে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।
অনুভুতি প্রকাশ করতে গিয়ে সফল এই জননীর ছেলে এ্যাডভোকেট কাজী সালাহ উদ্দিন কাদের প্রিন্স জানান, তারা ৩ ভাই-বোন উচ্চ শিক্ষা লাভের জন্য যখন ঢাকায় পড়া-লেখা শুরু করেন তখন তাদের একমাত্র মা সহায়ক ছিলেন। পরিবারের অন্য সদস্যদের কাছ থেকেও কোন ধরনের সহায়তা পাননি। সম্পদ বিক্রি করে এবং বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে ধার দেনা করে একমাত্র তার মা নানা মুখি মানসিক চাপ ও ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে তাদের এই অবস্থানে এনেছেন। ইয়াসমিন আক্তার রুবি আজ বান্দরবান জেলার সফল জননীর মডেল। দেশ ও জাতির ভবিষ্যত বিনির্মাণে এই মায়েরাই আর্দশ নারী।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।