বান্দরবানে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ : আটক ১

বান্দরবানের লামা উপজেলায় অচেতন করে এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার দিবাগত রাতে উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ঠান্ডাঝিরি পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষিতা ইয়াংছা জুনিয়র হাই স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্রী। এ ঘটনায় ইয়াংছা নতুন পাড়ার বাসিন্দা মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে মো. আনোয়ার হোসেনকে (২৯) আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয়রা। এদিকে পুলিশ বলছে ঘটনাটি প্রেম ঘটিত, প্রেমিক রুবেল স্কুল ছাত্রীর সঙ্গে দেখা করতে গেলে ঘটনাটি ঘটে।
ধর্ষিতার বাবা জানান, সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে ৭টার দিকে তার মেয়ে বাড়ির পাশে নজীরের দোকানে শ্যাম্পু কিনতে যায়। সেখান থেকে ফেরার পথে পূর্ব থেকে ঔঁত পেতে থাকা মো. আনোয়ার হোসেন ও রুবেল নামের দুই যুবক তার মেয়েকে মুখ চেপে ধরে পাহাড়ে নিয়ে যায়। সেখানে পানি জাতীয় এক প্রকার ঔষধ খাইয়ে অচেতন করে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ঘটনার পর ধর্ষক রুবেল পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও আনোয়ার হোসেনকে আটক করে স্থানীয়রা। পরে স্বজনেরা ধর্ষিতাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসেন স্থানীয়দের বরাত দিয়ে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ওই স্কুল ছাত্রীর সঙ্গে কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার কাহারিয়া ঘোনার মো. রুবেলের সঙ্গে প্রেম ছিল। সোমবার সন্ধ্যায় আনোয়ার হোসেনের সহায়তা রুবেল প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে গেলে এ ঘটনা ঘটে। তবে স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে কিনা, তা মেডিকেল টেস্টের পর নিশ্চিত বলা যাবে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।