বান্দরবানে হোটেল নির্মাণের প্রতিবাদে ম্রো’দের লংমার্চ

বান্দরবানের থানচি উপজেলার নাইতং পাহাড়ের কা প্রু পাড়া এলাকায় পাঁচ তারকা হোটেল নির্মাণের প্রতিবাদে ক্ষুদ্র নৃগোষ্টির ম্রো সম্প্রদায় চিম্বুক এলাকা থেকে ৩০ কিলোমিটার লংমার্চ করে বান্দরবান শহরের রাজার মাঠে আসে,পরে তারা প্রতিবাদ সমাবেশ করে।

৭ ফেব্রুয়ারী (রবিবার) সকালে লংমার্চটি সকাল ৯ টায় বান্দরবানের চিম্বুক এলাকার রামরি পাড়া থেকে শুরু হয়ে দুপুর ২.৩০ মিনিটে বান্দরবান শহরের রাজার মাঠে গিয়ে শেষ হয়। লংমার্চে ম্রো জনগোষ্ঠীর সহস্রাধিক নারী-পুরুষ বিভিন্ন ধরণের ব্যানার ফেস্টুন ও প্ল্যাকার্ড নিয়ে অংশগ্রহণ করে এবং বান্দরবানের নাইতং পাহাড়ের কা প্রু পাড়া এলাকায় পাঁচ তারকা হোটেল নির্মাণের প্রতিবাদ জানায়।

বান্দরবানের চিম্বুক পাহাড় ছাড়াও বিভিন্ন জায়গা থেকে আসা ম্রো জনগোষ্ঠীর জনসাধারণ এতে অংশ নেয়, লংমার্চে ম্রো সম্প্রদায় তাদের ঐতিহ্যবাহী বাঁশের বাঁশি বাজিয়ে তাদের এলাকায় আধুনিক হোটেল নির্মাণের প্রতিবাদ জানায়। পরে শহরের রাজার মাঠে এসে সবাই একত্রিত হয় এবং একটি বিক্ষোভ সমাবেশ করে।

এসময় বক্তারা বলেন, বান্দরবানের নাইতং পাহাড়ের কা প্রু পাড়া এলাকায় পাঁচ তারকা হোটেল নির্মাণ করা হলে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির ম্রো সম্প্রদায় ক্ষতিগ্রস্থ হবে এবং তারা তাদের জমি থেকে উচ্ছেদ হয়ে যাবে। এসময় বক্তারা, পাহাড়ের সৌন্দর্য্য নষ্ট না করে পাহাড়ে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির সুন্দরভাবে বসবাসের জন্য পাঁচ তারকা হোটেল নির্মাণ বন্ধ রাখার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানায়।

উল্লেখ্য,বান্দরবানের নীলগিরি’র নাইতং পাহাড় এলাকার চন্দ্র পাহাড় নামক স্থানে সিকদার গ্রুপ নামে একটি প্রতিষ্ঠান পাঁচ তারকা মানের হোটেল তৈরি করার কাজ শুরু করেছে, আর ম্রো জনগোষ্ঠী শুরু থেকেই তাদের জমি দখলের অভিযোগসহ বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে এই পাঁচ তারকা মানের হোটেল বন্ধের প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে বিভিন্ন কর্মসুচী পালন করে আসছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।