বান্দরবানে ৩ সাংবাদিক নিয়ে পুলিশের ডেঙ্গু প্রতিরোধে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন অভিযান !

বান্দরবানে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সাংবাদিক-পুলিশ যৌথ উদ্যোগে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান অনুষ্ঠিত হয়। আর সেখানে পুলিশ সদস্যদের ব্যাপক উপস্থিতি পরিলক্ষিত হলেও সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে মাত্র ৩ জন সাংবাদিক উপস্থিত থাকায় অভিযানে সাংবাদিকদের যুক্ত করার বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার (১০ আগস্ট) সকালে জেলা পুলিশ ও সাংবাদিকদের যৌথ উদ্যোগে ডেঙ্গু প্রতিরোধে এই পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন অভিযান পরিচালনা করা হয়। সেখানে ডেঙ্গু প্রতিরোধের এই অভিযান কর্মসূচীর মূল উদ্দ্যেগ গ্রহন করে জেলা পুলিশ। অভিযান কর্মসূচীটি সাংবাদিকদের যৌথ উদ্যোগ হিসাবে প্রচারণা চালানো হলেও ক্ষোধ পুলিশের পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের আমন্ত্রন জানানো হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে।

আরো জানা গেছে, বান্দরবানে প্রথম সারির প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার কমপক্ষে ৩৫ জন সংবাদকর্মী কর্মরত থাকলেও উক্ত অভিযানে প্রেসক্লাবের সভাপতি মনিরুল ইসলাম ও সাবেক সভাপতি আমিনুল ইসলাম বাচ্চুসহ প্রথম সারির গণমাধ্যমের তিনজন সাংবাদিক উপস্থিত হতে দেখা যায়।

এই ব্যাপারে দৈনিক প্রথম আলোর বান্দরবান প্রতিনিধি বুদ্ধ জ্যোতি চাকমা পাহাড়বার্তাকে বলেন, সাংবাদিক ও পুলিশ যৌথ উদ্যোগে ডেঙ্গু প্রতিরোধে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান, কিন্তু আমাদের জানানো হয়নি।

আরো জানা গেছে, এ সময় তিন সাংবাদিক এবং পুলিশ সদস্যরা বান্দরবানের শহীদ মিনার প্রাঙ্গন হতে শুরু করে প্রধান সড়কের দুই পাশের ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানে অংশ নেন। অভিযানে সড়কের ময়লা আবর্জনা পরিস্কারের পাশাপাশি পথচারীদের ডেঙ্গু রোগ থেকে মুক্ত থাকতে সচেতনতামুলক দিক নির্দেশনা ও প্রদান করেন।

এই ব্যাপারে বান্দরবান রিপোটার্স ইউনিটির সভাপতি,দৈনিক ভোরের কাগজ এর প্রতিনিধি মংসানু মার্মা পাহাড়বার্তাকে বলেন, সাংবাদিকদের নিয়ে পুলিশের কর্মসূচী কিন্তু আমাদের সংগঠনের কেউ জানলো না, আমরা জানিনা।

আরো জানা গেছে, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন অভিযানে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবানের পুলিশ সুপার জাকির হোসেন মজুমদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কামরুজ্জামান, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শহিদুল ইসলাম চৌধুরী, ডিএসবির ওসি বাচা মিয়া, ট্রাফিক ইনস্পেক্টর সালাউদ্দিন মামুনসহ পুলিশের সদস্য।

এই ব্যাপারে সময় টেলিভিশন ও জনকন্ঠের প্রতিনিধি এস বাসু দাশ জানান, সাংবাদিকদের নিয়ে পুলিশের কর্মসূচী, কিন্তু প্রথম সারির গণমাধ্যমের সাংবাদিকরাই জানেনা, আমি নিজেও জানিনা।

এদিকে অভিযানে পুলিশ সুপার জাকির হোসেন মজুমদার বলেন,ডেঙ্গু রোগ মোকাবেলায় আমাদের সকলকে সচেতন হতে হবে এবং নিজ বাড়ী ও অফিস আদালত পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রেখে সুস্থ জীবন ধারণ করতে হবে।

আরও পড়ুন
1 মন্তব্য
  1. মিডিয়া বন্ধু বলেছেন

    দাদা ৩ জন সাংবাদিক যে উদেশ্য নিয়ে ডেঙ্গু অভিযন করল তাদের উদেশ্য পুরন হয়েছে। আর কি দরকার……… পুলিশ যদি আসল কাজ বাদ দিয়ে মশা মারে তাহলে ৩ জন সাংবাদিক আর দোষ কি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।