বান্দরবান ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ শিক্ষক আবুল খায়েরকে তলব

পাহাড়বার্তা’য় সংবাদ

“কোচিংয়ে ব্যস্ত বান্দরবান ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ শিক্ষক আবুল খায়ের : সরকারি নির্দেশনা অমান্য” আজ সোমবার (২৩) মার্চ বিকালে পার্বত্য জেলার অন্যতম নিউজ পোর্টাল পাহাড়বার্তা’য় একটি সংবাদ প্রকাশ করা হলে বিষয়টি প্রশাসনের দৃষ্টি গোচর হওয়ায় এই শিক্ষককে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে আজ সোমবার সন্ধ্যায় তলব করা হয়।

এসময় ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ শিক্ষক আবুল খায়ের ভূইয়া কোচিং সেন্টার খোলা রেখে আগত ছাত্রছাত্রীদের অত্যান্ত ঝুঁকির মুখে ফেলেছে বলে স্বীকার করে আইন বহির্ভূত কাজ করবেনা বলে অঙ্গিকার করেন। এসময় সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাবিবুল হাসান, সদর থানার উপ পরিদর্শক মাঈন উদ্দিন, পাহাড়বার্তার পরিকল্পনা সম্পাদক কৌশিক দাশ উপস্থিত ছিলেন।
⬛ পাহাড়বার্তা‘র পাঠকদের জন্য এই শিক্ষকের অঙ্গিকারনামা হুবহু তুলে ধরা হলো।

নোভেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাই ও হোম কোয়ারেন্টাইন মেনে চলা, সভা সমাবেশ,গনজামায়েত এড়িয়ে চলার মাধ্যমে ভাইরাস সংক্রামন ও বিস্তার রোধে সরকার ইতিমধ্যে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ প্রদান করেছেন।

আমি নিন্মস্বাক্ষরকারী মো: আবুল খায়ের ভূইয়া, পিতা মোহাম্মদ মোরশেদ আলম ভূইয়া, (সহ-শিক্ষক আইসিটি) বান্দরবান ক্যান্টননেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ সরকারের অনুশাসন ভঙ্গ করে বান্দরবান জজকোর্ট সন্মুখস্থ আমার কোচিং সেন্টার সচল রেখে আইন ভঙ্গ করেছি।

আমার এই ধরণের দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণ ও অসেচতনতার কারনে করোনা ভাইরাস সংক্রামনের দ্বারা কোচিং সেন্টারে আগত ছাত্রছাত্রীদের অত্যান্ত ঝুঁকির মুখে ফেলে দিয়েছি। এজন্য আমি অত্যান্ত অনুতপ্ত ও দু:খিত ।

ভবিষ্যতে সরকারি কোন নিয়ম ও সরকারের অনুশাসন ভঙ্গ করে এই ধরণের আর আইন বহির্ভূত কাজ করবোনা মর্মে সেচ্ছায়, স্বজ্ঞানে, কারো বিনা প্ররোচনায় অঙ্গিকার করছি। (স্বাক্ষরিত)

আরও পড়ুন
Loading...