বান্দরবান জুয়েলার্স মালিক সমিতির নেতা বটে : পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দিলেন শ্রমিকের

বান্দরবান জুয়েলার্স মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও জেলা শহরের বাজারের সুগন্ধা জুয়েলার্সের মালিক লিটন ধর কর্তৃক এক স্বর্ণকারকে নির্মম ভাবে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে । হামলার শিকার ব্যক্তির নাম সঞ্জয় ধর (৪০)। সে বান্দরবান শহরের হাবিব বোডিং সংলগ্ন বান্দরবান প্যাথলজির ২য় তলায় স্বর্ণের কারখানার কারিগর।

নির্মম নির্যাতনে শিকার সঞ্জয় ধর জানান,গত সোমবার (৩ নভেম্বর)সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় সুগন্ধা জুয়েলার্সের মালিক লিটন ধর কারখানায় এসে তার বন্ধু সুজন দাশ,আনন্দসহ আরো কয়েকজনের সামনে অশালীন ভাষায় গালাগাল এবং বাটাম (গাছের টুকরো) দিয়ে মারধর শুরু করে রক্তাক্ত করেন। ঐ রক্তাক্ত অবস্থায় কোনভাবে প্রান নিয়ে পালিয়ে বান্দরবান সদর থানার শরণাপন্ন হই।

তিনি আরো বলেন,পুলিশের পরামর্শে এক পর্যায়ে বান্দরবান সদর হাসপাতালে ভর্তি হই। পরে ডাক্তারের পরামর্শে পরীক্ষা করে জানতে পারি হাতের বিভিন্ন অংশের হাড় ভেঙ্গে গেছে। এনিয়ে থানায় কোন প্রকার অভিযোগ না জানাতে লিটন ধর বিভিন্ন মাধ্যমে হুমকি প্রদান করছে।

ঘটনার সময় উপস্থিত থাকা সুজন দাশ জানান, এ হামলা লিটন ধরের নতুন নয়, এর পূর্বেও কয়েক জন এবং আমাকেও মেরেছিল এবং হুমকি দিয়েছিল মেরে ফেললেও বান্দরবানের কেউ তার কিছুই করতে পারবে না।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বান্দরবানে জুয়েলার্স মালিক সমিতির এই নেতা তথা লিটন ধরের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে শহরের চোরদের কাছ থেকে বিভিন্ন চোরাই স্বর্ণ ক্রয় করে তার ব্যবসা এবং সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

তবে এবিষয়ে অভিযুক্ত সুগন্ধা জুয়েলার্সের মালিক লিটন ধর জানান,পাওনা আদায় করতে গিয়ে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে মারামারির এই ঘটনা ঘটে, কাউকে প্রান নাশের উদ্দ্যেশে এই হামলা করা হয়নি।

এদিকে বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম বলেন, এখনও কোন মামলা হয়নি, মামলা হলে আইনি ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরও পড়ুন
Loading...