বান্দরবান পৌর নির্বাচনে মূল লড়াই হবে নৌকা ও ধানের শীষে

বান্দরবানের পৌরসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ হতে যাচ্ছে আগামী ১৪ ফ্রেব্রুয়ারী। সময় বাকি আর মাত্র ৪ দিন। নির্বাচনের সময় যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই প্রার্থী, প্রার্থীদের কর্মী সমর্থক ও নিজ নিজ দলীয় নেতাকর্মীরা খাওয়া-দাওয়া ছেড়ে কোমর বেঁধে নির্বাচনী মাঠে দিন-রাত প্রচারণা করছেন। এ নির্বাচনে ৫ মেয়র প্রার্থীসহ, সাধারণ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে মোট ৩৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। তবে সম মিলিয়ে মূল লড়াই হবে নৌকা ও ধানের শীষের প্রার্থীর মধ্যে, এমন মত রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের।

এখন তারা ভোটারদের কাছে গিয়ে আদর্শের বয়ানসহ পৌরসভার উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করছেন। সাথে মাঠে প্রচারনায় নেমে পড়েছেন প্রার্থীদের স্ত্রী, স্বামী ও সন্তানরাও। নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দের পর পরেই পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে শহরের অলি-গলি, বাসা-বাড়ি, চায়ের দোকান, গাছপালা ও বিভিন্ন স্থাপনায়।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, পৌরসভায় ভোটার সংখ্যা ২৯ হাজার ৭ শত ২৯জন। আগামী ১২ ফ্রেব্রুয়ারী রাত ১২টা থেকে প্রচার-প্রচারণা বন্ধ হয়ে যাবে। এর আগেই যা প্রচারণার দরকার সাধ্যমতো করে নিচ্ছেন প্রার্থীরা।

সরজমিনে দেখা যায়, একটি ভোট বাড়ানোর আশায় মেয়র প্রার্থীসহ কাউন্সিলর প্রার্থীরা মাঠে ঘাটে, বাড়ীতে প্রচার প্রচারনায় নির্বাচনী এলাকা সরগরম করে তুলছেন। বেলা দুইটার পর অটোরিক্সা, ইজিবাইক ও রিক্সায় মাইক বেঁধে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন প্রার্থীরা। অলিতে গলিতে লিফলেট নিয়ে প্রার্থীর সমর্থকরা ঘরে ঘরে ভোট চাচ্ছেন। আবার কোন কোন প্রার্থী গভীর রাতে ফোন করে কুশল বিনিময় করে ভোট প্রার্থনা করছে।

মেয়র পদে নৌকা প্রতীকের আওয়ামী লীগের বর্তমান মেয়র ইসলাম বেবী,ধানের শীষ প্রতীকের বিএনপির সাবেক মেয়র জাবেদ রেজা, লাঙ্গল প্রতীকে জাতীয় পার্টির মোহাম্মদ শাহ জাহান, মোবাইল ফোন বিধান লালা, নারিকেল গাছ নাছির উদ্দীন মানুষের দুয়ারে গিয়ে ভোট প্রার্থণা করছেন। প্রচার প্রচারণা ও জন সমর্থনে এগিয়ে রয়েছেন আওয়ামী লীগের ইসলাম বেবী ও বিএনপির প্রার্থী জাবেদ রেজা। একই ভাবে সংরক্ষিত মহিলা ও সাধারণ কাউন্সিলর পদে প্রার্থীরা নিজ নিজ মার্কা নিয়ে জোর প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছেন।

ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, মেয়র পদে ৫জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করলেও মূলত ভোটের লড়াই হবে বর্তমান মেয়র ইসলাম বেবী ও সাবেক মেয়র জাবেদ রেজার মধ্যে।

পৌর এলাকার স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা হলে নয়ন হোসেন, দিদার আলী,পারভেজসহ অনেকে জানান, এবার চারদিকে মেয়র পরিবর্তনের আওয়াজ শোনা যাচ্ছে। অবাধ সুষ্ঠ নির্বাচন নিয়ে শংঙ্কা প্রকাশ করছে অনেকেই। অবাধ, সুষ্ঠ, নিরপেক্ষ ভোটের মাধ্যমে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করার সুযোগ চান পৌরবাসী।

আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইসলাম বেবী বলেন, পাঁচ বছর পৌরবাসীর সেবা করেছি, তারা যদি ভোট দিয়ে নির্বাচিত করে তবে মন্ত্রীর সহযোগিতায় পৌর এলাকার উন্নয়ন অব্যহত থাকবে এবং অসামপ্ত কাজ শেষ করতে পারবো।

বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ জাবেদ রেজা বলেন, আমি মনে করি নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে বিপুল ভোটের ব্যবধানে আমি জয়যুক্ত হব। পাঁচ বছর পৌরসভার দায়িত্ব পালন করেছি এবং এখনো আমার আমলের উন্নয়নের কাজ বান্দরবান পৌর এলাকায় চলছে। পৌর পিতা নয়, পৌর সেবক হিসেবে কাজ করেছি এবং ভবিষ্যতে সেবক হিসেবে মানুষের সেবা করবো।

নির্বাচনের রিটানিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন অফিসার মো. রেজাউল করিম বলেন, ভোট গ্রহণের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হচ্ছে। আশা করছি শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন এবং তাদের পছন্দের প্রার্থীকে নির্বাচিত করবেন। অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচনের জন্য সকলের সহযোগিতাও কামনা করেন তিনি।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।